বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯, ০১:৪৬ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
ঠাকুরগাঁওয়ে দুই বাসের সংঘর্ষে নিহত ৩, আহত ২০ কুষ্টিয়ায় চাঞ্চল্যকর নার্স বিলকিস হত্যাকান্ডের রহস্য উন্মোচন ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামীলীগের উদ্যোগে  ভয়াল ২১ আগস্ট গ্রেনেড হত্যা দিবস পালিত।  দুর্জয় বাংলায় পত্রিকায় সংবাদ প্রকাশের পর তদন্ত শুরুঃ হাতীবান্ধা ইউপি রাস্তার কালভার্ট তুলে নেওয়াই হাজারো মানুষের দুর্ভোগ রাজারহাটে র‍্যাবের গুলিতে গুলিবিদ্ধ পলাতক আসামী গ্রেপ্তার বকশীগঞ্জে যাত্রী সেজে অটো রিকশা ছিনতাইয়ের চেষ্টা, আটক-২ শৈলকুপায় দু’দল গ্রামবাসীর সংঘর্ষে আহত বৃদ্ধা তছিরন নেছার মৃত্যু কেন্দুয়ায় ভিজিএফ কর্মসূচির চাল সন্দেহে তিন চালক আটক রামগঞ্জে অস্ত্র-গুলিসহ সন্ত্রাসী সায়েম গ্রেফতার মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর অতর্কিত হামলার ঘটনায় মামলাঃ আসামী গ্রেপ্তার হয়নি এখনও




জামালপুরে সবচেয়ে বড় ডিগ্রিরচর ঈদগাহ মাঠে ঈদের নামাজ সম্পন্ন।

জামালপুরে সবচেয়ে বড় ডিগ্রিরচর ঈদগাহ মাঠে ঈদের নামাজ সম্পন্ন।




 নিজ্বস্ব প্রতিবেদকঃ

জামালপুর জেলার সবচেয়ে বড় ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে জেলার ইসলামপুর উপজেলার চরপুটিমারি ইউনিয়ন ডিগ্রিরচর গ্রামে।

৫ জুন অন্তত অর্ধলক্ষাধিক মুসল্লির অংশগ্রহণে ঐতিহ্যবাহী এ ঈদগাহ মাঠে ৮৬তম ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে স্থানীয়রা ছাড়াও অন্যান্য উপজেলার হাজারো ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা জামাতে অংশ নেন।

জানা যায়, উপজেলা সদরের পূর্ব প্রান্তে উপজেলার চরগোয়ালিনী ইউনিয়নে অবস্থিত জেলার সর্ববৃহৎ ও ঐতিহ্যবাহী ডিগ্রিরচর ঈদগাহ ময়দান। প্রতিবছর এ ময়দানে ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহার নামাজের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়।

কালের স্রোতে ডিগ্রিরচর ঈদগাহ ময়দানটি পরিণত হয়ে উঠেছে একটি ঐতিহাসিক স্থানে। জেলার সর্ববৃহৎ অনুষ্ঠিত এ ময়দানের বিশাল ঈদের জামায়াত গৌরবান্বিত ও ঐতিহ্যবাহী করে তুলেছে ইসলামপুর উপজেলাকে।

মহান আল্লাহ তায়ালার সান্নিধ্য লাভের আশায় প্রতিটি ঈদেই ঈদগাহে সকাল সকাল হাজির হন মুসুল্লিরা। যেখানে এক সঙ্গে অন্তত অর্ধ লক্ষাধিক মুসুল্লি ঈদের নামাজ আদায় করেন।

জেলার সবচেয়ে বড় ঈদগাহে ঈদের নামাজে অংশ নিতে এবারও সকাল থেকেই ছিল মুসুল্লিদের ঢল। সকাল ১০টায় প্রতিবারে মতো এবারও ঈদের নামাজের জামাতে ইমামতি করেন জেলার বকশীগঞ্জ উপজেলা জামে মসজিদের ইমাম হযরত মাওলানা এনায়েত উল্লাহ।

জেলার এই বৃহত্তম ঈদ জামায়াতে অংশ নিতে পেরে শুকরিয়া আদায় করেন মুসুল্লিরা। একই সঙ্গে এতো বড় ঈদ জামাত আয়োজন করাতে স্থানীয়দের মাঝে ছিল খুশির আমেজ।

জানা গেছে, ডিগ্রিরচর বড় ঈদগাহ মাঠটি ১৯৩৩ সালে স্থানীয় প্রখ্যাত আলমে-দ্বীন আল্লামা হযরত মফিজ উদ্দিন (রহঃ) প্রতিষ্ঠার উদ্যোগ গ্রহণ করলে এতে সর্বপ্রথম ৪০ শতাংশ জমি দান করেন স্থানীয় হাজি নয়ানদর ব্যাপারী।

এরপর দ্বিতীয় বারের মতো ঈদগার নামে ১৯৯২ সালে ১০ শতাংশ জমি দান করেন সমাজ সেবক রুস্তম আলী। এসব সমাজহৈতষি ব্যক্তিরা আজ কেউই বেঁচে নেই। বর্তমান ডিগ্রিরচর বড় ঈদগাহ মাঠের জমির পরিমাণ ৫ বিঘা।

এই ঈদগাহ মাঠটির চারের তৃতীয়াংশ উচু দেয়ালে ঘেরা। এছাড়া এই মাঠের প্রাচীর দেয়ালে দুইট দরজা রাখা হয়েছে। মাঠে মুসল্লির সংখ্যা প্রতিবছর বেড়ে চলেছে।

ঈদগাহ মাঠ পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজি আবু তালেব জানান, প্রখ্যাত আলমে-দ্বীন হযরত মাওলানা মফিজ উদ্দিন ১৯৩৩ সালে ডিগ্রিরচর গ্রামে ঈদের জামায়াতের আয়োজন করেন।

ওই জামায়াতে ইমামতি করেন তিনি নিজেই। পরিচালনা কমিটির কোষাধ্যক্ষ চিকিৎসক এনামুল হক জানান, দানকৃত ৫০শতাংশ জমি বাদে বাকি ১৬৫ শতাংশ জমি মুসল্লিদের দানের টাকায় ক্রয় করা হয়।

পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী লুৎফর জানান, ঈদগাহ’র ব্যবস্থাপনার জন্য একটি কার্যনির্বাহী কমিটি রয়েছে। ঈদের নামাজের জন্য সব ধরনের প্রস্তুতিমূলক কর্মকাণ্ড এই কমিটি করে থাকে।

ইসলামপুর উপজেলার চরপুটিমারী ও চরগোয়ালিনী ইউনিয়নের ৩৬টি গ্রামের মুসল্লিসহ পাশ্ববর্তী মেলান্দহ উপজেলার শ্যামপুর ও দুরমোঠ ইউনিয়ন এবং শেরপুর সদর উপজেলার কামারেরচর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম থেকে মুসল্লিরা ঈদের জামায়াতে অংশ গ্রহণ করেন।

আগামীতে মাঠের আয়তন আরও বাড়ানো হবে। তবে এখন পর্যন্ত সরকারি কোনো ধরনের বরাদ্দ পাওয়া যায়নি।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *













©২০১৩-২০১৯ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা
Desing & Developed BY DurjoyBangla
error: Content is protected !!