রবিবার, ২১ Jul ২০১৯, ১২:৩৮ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
মদনে নৌকা থেকে পড়ে গিয়ে সবজি বিক্রেতার মৃত্যু জামালগঞ্জে বজ্রপাতে নিহত দুই পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান সুনামগঞ্জে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পুড়ানো হলো তিনটি ড্রেজার মেশিন জামালগঞ্জে জন্মনিবন্ধন জালিয়াতি ও অশ্লীল ভিডিও রাখার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা সৈয়দপুরে অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে ৩ জনের বিনাশ্রম কারাদন্ড শহিদুল ইসলাম ডিগ্রী কলেজ ২য় বার ঝিনাইদহ জেলার শ্রেষ্ঠ কলেজ নির্বাচিত নীলফামারীতে যুব মহিলা লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত রাজারহাটে অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ আটক- ২ নেত্রকোনার হাওরাঞ্চলে একটি মৎস্য গবেষনা ইনষ্টিটিউট গড়ে তোলা হবে- মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু সাতকানিয়া- লোহাগড়া আপামর জনগনের পাশ্বে সুখে দুঃখে আছি থাকব,ড. আবু রেজা নদবী




ডিআইজি মিজানুর রহমানকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।

ডিআইজি মিজানুর রহমানকে সাসপেন্ড করা হয়েছে।




ব্যুরো চীফ, ঢাকা বিভাগঃ

পুলিশের উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মিজানুর রহমানকে মঙ্গলবার সাসপেন্ড করা হয়েছে। সম্প্রতি ঘুষ কেলেঙ্কারির ঘটনায় আবারও সমালোচিত হন মিজান। দুদকের কর্মকর্তার সঙ্গে ঘুষ লেনদেনের বিষয়টি সামনে আসার পর তাকে সাসপেন্ড করার একটি প্রস্তাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে রাষ্ট্রপতির কাছে পাঠানো হয়েছিল। রাষ্ট্রপতির অনুমোদন পাওয়ার পর মঙ্গলবার মিজানকে সাসপেন্ড করা হলো।

এখন তার বিরুদ্ধে পরবর্তী প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি চূড়ান্তভাবে দোষী প্রমাণিত হলে তাকে বরখাস্ত করা হবে।

দ্বিতীয় বিয়ে লুকাতে গিয়ে ক্ষমতার অপব্যবহার ও নারী নির্যাতনের অভিযোগে গত বছর ডিআইজি মিজানকে ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনারের পদ থেকে প্রত্যাহারের পর তাকে পুলিশ সদর দপ্তরে সংযুক্ত করা হয়েছিল। তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ তদন্ত করে পুলিশ সদর দপ্তর পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। এছাড়া মিজানের বিরুদ্ধে এক এক সংবাদ পাঠিকাকে প্রাণ নাশের হুমকি ও উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ উঠে।

মিজানুর রহমান ও তার স্ত্রীসহ স্বজনদের বিরুদ্ধে সম্পদের তথ্য গোপন ও অবৈধ সম্পদঅর্জনের অভিযোগে সোমবার মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সেই সঙ্গে দুদকের এক পরিচালককে ৪০ কোটি টাকা ঘুষ দেওয়ার অভিযোগ নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মিজানকে তলব করেছে দুদক। তার দেশ ত্যাগেও জারি করা হয় নিষেধাজ্ঞা।

গত বছরের ৮ জানুয়ারি পুলিশ সদর দপ্তর মিজানুর রহমানের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। পুলিশের তদন্ত কমিটি তাদের মতামতসহ তা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠায়। এছাড়া সম্প্রতি ঘুষ লেনদেনে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠার পরই ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে উচ্চ পর্যায়ের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করে পুলিশ সদর দপ্তর।

গত বছরের ৩ মে অবৈধ সম্পদসহ বিভিন্ন দুর্নীতির অভিযোগে মিজানুরকে দুদক কার্যালয়ে প্রায় সাত ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এরপর মিজানুর রহমান ও তার প্রথম স্ত্রী সোহেলিয়া আনারের আয়ের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ সম্পদের খোঁজ পায় দুদক।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *













©২০১৩-২০১৯ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা
Desing & Developed BY DurjoyBangla
error: Content is protected !!