রবিবার, ২১ Jul ২০১৯, ০১:২৩ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
কেন্দুয়ায় বিদ্যুৎস্পর্শে এক ব্যক্তির মৃত্যু মদনে নৌকা থেকে পড়ে গিয়ে সবজি বিক্রেতার মৃত্যু জামালগঞ্জে বজ্রপাতে নিহত দুই পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান সুনামগঞ্জে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পুড়ানো হলো তিনটি ড্রেজার মেশিন জামালগঞ্জে জন্মনিবন্ধন জালিয়াতি ও অশ্লীল ভিডিও রাখার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা সৈয়দপুরে অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে ৩ জনের বিনাশ্রম কারাদন্ড শহিদুল ইসলাম ডিগ্রী কলেজ ২য় বার ঝিনাইদহ জেলার শ্রেষ্ঠ কলেজ নির্বাচিত নীলফামারীতে যুব মহিলা লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত রাজারহাটে অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ আটক- ২ নেত্রকোনার হাওরাঞ্চলে একটি মৎস্য গবেষনা ইনষ্টিটিউট গড়ে তোলা হবে- মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু




তাহিরপুরে পানিবন্ধী পরিবারের লোকজনের মধ্যে শুকনো খাবার বিতরণ

তাহিরপুরে পানিবন্ধী পরিবারের লোকজনের মধ্যে শুকনো খাবার বিতরণ




বিশেষ প্রতিনিধি::
সুনামগঞ্জের তাহিরপুরের পানিবন্দী পরিবারের লোকজনের মধ্যে শুকনো খাবার বিতরণ করা হয়।
উপজেলার বড়দল উওর ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান বুধবার দুপুর থেকে মধ্যরাত অবধি পঁচিশ গ্রামের লোকজনের মধ্যে বাড়িবাড়ি গিয়ে নৌকা যোগে এসব শুকনো খাবার বিতরণ করেন।,
উল্ল্যেখ যে, উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢল ও টানা পাঁচদিনের প্রবল বৃষ্টিপাতের কারনে সীমান্তনদী এবং পাহাড়িছড়া ভেদ করে ঢলে পানি ডুকে পানিবন্ধী করে ফেলে উপজেলার উজান ও নি¤œাঞ্চলের গ্রামীণ জনপদগুলোকে।
যে কারনে গ্রামীণ হাট বাজারগুলোতে বুধবার সকাল থেকে প্রায় ৩ ফুট সমপরিমাণ ঢলের পানি প্রবেশ করায় দোকানপাঠ বন্ধ করে দেন ব্যবসায়ীরা।
অপরদিকে বিভিন্ন গ্রামীণ বসতিতে ঢলের পানি ডুকে পড়ায় কোন কোন পরিবারে সকাল থেকে রাত অবধি চুলো জ্বালানো সম্ভব হয়নি। ফলে পানিবন্ধী পরিবারগুলোতে দেখা দেয় শুকনো খাবারের তীব্র সংকট।
এ অবস্থায় উপজেলার বড়দল উওর ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কাশেম তার ব্যাক্তিগত তহবিল থেকে লক্ষাধিক টাকার শুকনো খাবার ক্রয় করে নিজ ইউনিয়নের বোরখাড়া, কাশতাল, চরগাঁও, আমবাড়ি, রাশেশ্বরপুর, ফকিরনগর, পুরানঘাট, ব্রাম্মণগাঁও, কড়ইগড়া, রাজাই, আমতৈল সহ পচিশ গ্রামের পানিবন্দী পরিবারের লোকজনের মধ্যে শুকনো খাবার হিসাবে চিড়া, মুড়ি, গুড়,পাউরুটি, কেক, টোষ্ট, খাবার স্যালাইন বিতরণ করেন।,
এদিকে উপজেলা সদর, বাদাঘাট উওর, শ্রীপুর উওর, শ্রীপুর দক্ষিণ, বড়দল দক্ষিণ,বালিজুরি মডেল ইউনিয়ন সহ সাত ইউনিয়নের কমপক্ষে দুই শতাধিক গ্রামে পাহাড়ি ঢলের পানি প্রবেশ করায় এসব গ্রামের অধিকাংশ পরিবারে বুধবার সকাল থেকে রাত অবধি চুলো জ্বালানো সম্ভব হয়নি বলে ভোক্তভোগী পানিবন্দী পরিবারের লোকজন জানিয়েছেন।
যে কারনে ওইসব গ্রামীণ জনপদে পানিবন্দী পরিবারগুলোতে শুকনো খাবারের সংকট দেখা দিয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *













©২০১৩-২০১৯ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা
Desing & Developed BY DurjoyBangla
error: Content is protected !!