রবিবার, ২৬ মে ২০১৯, ০৩:০৮ অপরাহ্ন

ব্রেকিং নিউজঃ
লেখা ও বিজ্ঞাপন আহব্বান, দুর্জয় বাংলা পত্রিকার আয়োজনে "ঈদ সংখ্যা" প্রকাশিত হবে।
সংবাদ শিরোনামঃ
মিরপুরে সন্তানকে পাঁচতলা থেকে ছুড়ে ফেলে হত্যাকারী ‘মা’ আটক বাংলাদেশ পুলিশে কনস্টেবল পদে ৯,৬৮০ জনকে নিয়োগ বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে নিয়োগ বাকৃবি’র নতুন ভিসি নিয়োগের আলোচনায় জনশ্রুতির শীর্ষে রয়েছেন ড.লুৎফুল হাসান।  সৌন্দর্যের লীলাভূমি সিলেটের বিছনাকান্দি গোয়াইনঘাট উন্নয়ন ফোরামের বিভিন্ন আয়োজনে ইফতার মাহফিল সম্পন্ন পুলিশ মানুষের বন্ধু বলে বকশীগঞ্জে ৩টি চোড়াই গরু উদ্ধার আন্তঃজেলা পুলিশ সুপার হামদ/নাত,ক্বিরাত ও আযান প্রতিযোগীতার অনুষ্ঠানে-শিক্ষামন্ত্রী ঝিনাইদহের মহেশপুরে ইয়াবাসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক শেরপুরে রেজা ফাগুন হত্যার বিচার দাবীতে মানববন্ধন ও ৫ দিনের কর্মসূচী ঘোষণা।  




নেত্রকোনার পূর্বধলায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে মৃত্যুদন্ড, শ্বাশুড়ীকে খালাস দিয়েছে আদালত। 

নেত্রকোনার পূর্বধলায় স্ত্রী হত্যার দায়ে স্বামীকে মৃত্যুদন্ড, শ্বাশুড়ীকে খালাস দিয়েছে আদালত। 




এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা।।

নেত্রকোনার পূর্বধলায় স্ত্রী লাভলী আক্তারকে হত্যার দায়ে পাষন্ড স্বামী (পলাতক) ফারুক মিয়াকে মৃত্যুদন্ড এবং মামলার অপর আসামী শ্বাশুড়ী মাজেদা বেগমকে বে-কসুর খালাসের আদেশ দিয়েছেন নেত্রকোনা জেলা ও দায়রা জজ আদালত।

জেলা ও দায়রা জজ কে এম রাশেদুজ্জামান রাজা বুধবার দুপুরে প্রধান আসামীর অনুপস্তিতিতে এ রায় প্রদান করেন। মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামী ফারুক মিয়া নেত্রকোনা জেলার পূর্বধলা উপজেলার আগিয়া ইউনিয়নের দক্ষিণ কালডোয়ার গ্রামের মৃত তোফাজ্জল হোসেনের ছেলে।
আদালত সূত্রে মামলার সংক্ষিপ্ত বিবরণে প্রকাশ, বিয়ের কয়েক মাসের পার হতে না হতেই পারিবারিক কলহের জের ধরে বিগত ২০০৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর ভোর রাতে ফারুক মিয়া তার স্ত্রী লাভলী আক্তারকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। রাতেই লাশ ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে রেখে ঘটনাটি ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে লাভলী আত্মহত্যা করেছে বলে অপ-প্রচার চালায়। পরদিন সকালে খবর পেয়ে লাভলীর বাবা জয়নাল আবেদীন পুলিশ নিয়ে লাশ উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে নিহত লাভলীর বাবা জয়নাল আবেদীন বাদী হয়ে ২ সেপ্টেম্বর জামাতা ফারুক ও তার মা মাজেদা বেগমসহ মোট ৫ জনকে আসামী করে পূর্বধলা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পুলিশ দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১২ সনের ৩১ জুলাই আসামী ফারুক মিয়া ও তার মা মাজেদার বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশীট দাখিল করে।

বিজ্ঞ বিচারক ৯ জন সাক্ষীর স্বাক্ষ্য গ্রহণান্তে আসামী ফারুকের বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণীত হওয়ায় তাকে মৃত্যুদন্ড এবং অপর আসামী মাজেদা বেগমের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণীত না হওয়ায় তাকে বে-কসুর খালাস দেয়া হয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *













©২০১৩-২০১৯ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা
Desing & Developed BY DurjoyBangla