রবিবার, ২১ Jul ২০১৯, ১২:৩৭ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
মদনে নৌকা থেকে পড়ে গিয়ে সবজি বিক্রেতার মৃত্যু জামালগঞ্জে বজ্রপাতে নিহত দুই পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান সুনামগঞ্জে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে পুড়ানো হলো তিনটি ড্রেজার মেশিন জামালগঞ্জে জন্মনিবন্ধন জালিয়াতি ও অশ্লীল ভিডিও রাখার দায়ে ভ্রাম্যমান আদালতের জরিমানা সৈয়দপুরে অসামাজিক কার্যকলাপের দায়ে ৩ জনের বিনাশ্রম কারাদন্ড শহিদুল ইসলাম ডিগ্রী কলেজ ২য় বার ঝিনাইদহ জেলার শ্রেষ্ঠ কলেজ নির্বাচিত নীলফামারীতে যুব মহিলা লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত রাজারহাটে অবৈধ কারেন্ট জাল জব্দ আটক- ২ নেত্রকোনার হাওরাঞ্চলে একটি মৎস্য গবেষনা ইনষ্টিটিউট গড়ে তোলা হবে- মৎস্য ও প্রাণি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী আশরাফ আলী খান খসরু সাতকানিয়া- লোহাগড়া আপামর জনগনের পাশ্বে সুখে দুঃখে আছি থাকব,ড. আবু রেজা নদবী




নেত্রকোনায় কংশ ও সুমেশ্বরী নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে

নেত্রকোনায় কংশ ও সুমেশ্বরী নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে




 

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা থেকে: টানা তিন দিন ব্যাপী অব্যাহত ভারী বৃষ্টিপাত ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের কারণে নেত্রকোনার প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, গত সোমবার থেকে নেত্রকোনায় ভারী বৃষ্টিপাত অব্যাহত রয়েছে। সেই সাথে ভারতের মেঘালয় রাজ্য থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলের ফলে সুমেশ্বরী, কংশ ও উব্দাখালী নদীর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। এ ব্যাপারে বুধবার সন্ধ্যায় জারিয়া কংশ নদীর পানির মিটার রিডার মোঃ আলমগীর হোসেনের সাথে যোগাযোগ করলে সে জানায়, কংশ নদীর পানি বিপদ সীমার ১১৬ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সুমেশ্বরী নদীর পানির মিটার রিডার নাঈম আহমেদ জানান, সুমেশ্বরী নদীর পানি বিপদ সীমার ৬৫ সে.মি. উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।
জেলার প্রধান প্রধান নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় নদী তীরবর্তী এলাকার ঘরবাড়ী ও হাট-বাজার হুমকির মুখে পড়েছে। অনেক জায়গায় নদীর কুল উপচে নিন্মাঞ্চলের অনেক বাড়ি-ঘরে ঢলের পানি ঢুকছে শুরু করেছে। আমন ধানের বীজতলা ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আংশকা করা হচ্ছে।
নেত্রকোনা জেলা কৃষক সমিতির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার আনিছুর রহমান বলেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ আমরা জেলার প্রধান প্রধান নদ-নদী, খাল বিল গুলি দ্রুত খননের জোর দাবী জানিয়ে আসছি। কিন্তু সংশ্লিষ্ট কতর্ৃপক্ষ এ ব্যাপারে কোন কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছেন না। যদিও বা মাঝে মধ্যে নদী ও খাল খননের কথা শুনা যায়। কিন্তু বাস্তবে যে ভাবে নদী ও খাল খনন করলে তা জনগনের উপকারে আসতো সেভাবে খনন করা হয় না। ফলে তা জনগনের কোন উপকারে আসে না।
এদিকে অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলের কারণে শ্যামগঞ্জ-বিরিশিরি সড়কের ইন্দ্রপুর এলাকায় একটি সেতু ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে। নেত্রকোনার পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং সড়ক বিভাগ সেতুটি রক্ষার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *













©২০১৩-২০১৯ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা
Desing & Developed BY DurjoyBangla
error: Content is protected !!