শুক্রবার, ১৯ Jul ২০১৯, ০২:০৯ পূর্বাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
ত্রাণ নিয়ে বানভাসীদের পাশে দাঁড়ালেন জেহাদ জাতীয় পতাকা বিধিমালা আইন লঙ্গন বাগলী শুল্ক ষ্টেশনে উক্তোলন করা হয়নি জাতীয় পতাকা! জামালগঞ্জে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ উপলক্ষে র‌্যালি ও আলোচনা সভা রাজারহাটে জাতীয় মৎস্য সপ্তাহ ২০১৯ উদ্বোধন মদনে শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানি করার শিক্ষক গ্রেফতার বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশ্বে সাতকানিয়া সমিতি-চট্টগ্রাম শৈলকুপায় মধ্যরাতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি আটপাড়ায় ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হলেন -মো: সুমন খান আটপাড়া উপজেলা ভূমি অফিস পরিদর্শন করেন অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার -এইচ.এম. লোকমান আটপাড়ায় জাতীয় মৎস্য সপ্তাহের র‍্যালি ও আলোচনা সভা




মধুপুরে আদিবাসী কো-অপারেটিব ক্রেডিট ইউঃ লিঃ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ।

মধুপুরে আদিবাসী কো-অপারেটিব ক্রেডিট ইউঃ লিঃ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ।




বদরুল আমীন, ময়মনসিংহ।।

টাংগাইল জেলার মধুপুরে আবিমা আদিবাসী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর কার্যকরী কমিটি ও প্রাক্তন ম্যানাজার কর্তৃক কোটি টাকা আত্মসাৎ করার অভিযোগে গত ২২ মার্চ/২০১৯ প্রহশন মূলক নির্বাচন আয়োজনকারী ও তাদের সহযোগী সমবায় কর্মকর্তাদের শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ উপলে তীব্র সমালোচনা করে তাদের শাস্তী দাবী করেছেন।

সমিতির সদস্য ও কর্মকর্তাদের সংখা ঘরিষ্টরা অভিযোগ করেন, আবিমা আদিবাসী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লিঃ এর বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটি সমবায় সমিতির আইন-কানুন ও নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে কোটি টাকা আত্মসাৎ করে সমিতিকে দেউলিয়াতে পরিনত করেছেন। সমিতির বর্তমান দুর্নীতিগ্রস্থ ব্যবস্থাপনা কমিটি, বিশেষ ভাবে চেয়ারম্যান মিঃ আন্তনী মাংসাং গং, নানা ভাবে দায়সারা নির্বাচন দিয়ে পুনরায় তার সমর্থনপুষ্ট ও আত্মীয় স্বজনদের প্রাক্তন ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যদেরকে মতায় আনার জন্যে সব ধরনের কুট কৌশল অবলম্বন করেন। মোট সদস্য ৩৯০৪ জনের মধ্য হতে মাত্র ২৪০জনকে চুড়ান্ত ভোটার তালিকায় অন্তরভুক্ত করে নির্বাচন করার পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়। এতে সদস্যরা প্রতিবাদ জানায়।

বিষয়টি নিয়ে বর্তমান নির্বাচন কমিটির সভাপতি মোঃ আব্দুল মান্নান, উপ-পরিদর্শক, জেলা সমবায় কার্যালয়, উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা, জেলা সমবায় কর্মকর্তা ও সমবায় অধিদপ্তরের যুগ্ম নিবন্ধক বরাবর আবেদন করা সত্বেও যথাযথ পদপে গ্রহন না করে প্রহসন মূলক নির্বাচন সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।
সূত্র জানায়, সমবায় আইন-২০০১ (সংশোধনী ২০০২ ও ২০১৩) ও বিধি ২০০৪ অনুসারে কোন সমিতির নির্বাচনী নোটিশ ৬০দিন পূর্বেই সকল সদস্যগণকে পৌছানোর আইন রয়েছে এবং নোটিশ প্রাপ্তি নিশ্চিত করতে হবে। কিন্তু বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটি তা না করে দায়সারা ভাবে সমিতি জলছত্রস্থ অফিসের দরজায় সাটিয়ে রাখা হয়, যা সদস্যগনের গোচরিভূত হয়নি এবং ভোটার হওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হয়েছে। নোটিশ পেলে অবশ্যই অনেক সদস্যগণই ভোটার হতেন।
সূত্র আরো জানায়, বিগত ২০১৫-২০১৬ ইং সালের নিরীক্ষা প্রতিবেদনের পর থেকেই সমিতির অবস্থা ভালভাবে পরিচালনা করা হয়নি। উক্ত নিরীা বষের্ ১১,৬৮,৩৭৮.৯০/= টাকা এবং ২০১৬-২০১৭ নিরীক্ষা বর্ষে ৮৪,৮২,০৩৭.৯০/= (চুরাশি লক্ষ, বিরাশি হাজার, সাত্রিশ টাকা, নব্বই পয়সা) হাতে নগদ পাওয়া যায় যা সমিতির আইন বিধি বহিঃভুত। বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটি উক্ত টাকা উদ্ধার করার জন্য কোন ধরনের পদপে গ্রহন করেনি।

সদস্যদের অভিযোগ উক্ত টাকা আত্মসাৎতের সাথে বর্তমান কমিটির সদস্যগণ, বিশেষ ভাবে সভাপতি মিঃ আন্তনী মাংসাং ও অন্যান সদস্যগণ প্রত্য ভাবে জরিত আছেন। উল্লেখিত টাকা যৌথভাবে আত্মসাৎ করার কারণে সমিতির সদস্যদের ঋণ, সঞ্চয় উত্তোলন ও অন্যান্য সঞ্চয় আমানত টাকা পরিশোধ করেনি বিধায় সাধারণ সদস্যগণ সমিতির সাথে যোগাযোগ ও শেয়ার-সঞ্চয় জমা বন্ধ করে দিয়েছিলেন।
জানাযায়, গত ১১/০২/২০১৯ ইং তারিখ তফসিল ঘোষনার পর সদস্যগণের অনেকেই শেয়ার সঞ্চয় জমা দিতে আবিমা কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লি: (আকুল) অফিসে এসেছিলেন। কিন্তু বর্তমান চেয়ারম্যান নানা অজুহাতে তাদেরকে সদস্যপদ হালনাগাদ পূর্বক ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করেনি। এমনকি উল্লেখ্য ভোটার তালিকাও যথাযথ প্রক্রিয়ায় চুরান্ত করা হয়নি। সমিতির নির্বাচনী তফছিল ঘোষনার পর সদস্যরা জানতে পারে বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটির ৪ সদস্যকে চুরান্ত বৈধ্য তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।

গত ২০১৬-২০১৭ জুনের নিরীা প্রতিবেদনের বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটির দায়িত্ব পালনে অবহেলা সংক্রান্ত যে, ১০ টি পয়েন্ট উল্লেখ করেছেন, সেই নিরিখে বর্তমান কমিটির প্রার্থীগণ প্রত্যক্ষ -পরোক্ষভাবে আর্থিক কেলেংকারীর সাথে যুক্ত রয়েছেন বলে প্রতিয়মান হয়। তাদের দায়িত্ব অবহেলার কারণে আবিমা আদিবাসী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়নে লিঃ বর্তমানে দেউলিয়াতে উপনীত হয়েছে বলে সদস্যদের অভিযোগ। তাদের দুর্নীতি ও অদতাকে আড়াল করার জন্যেই আবার পুরাতন ব্যবস্থাপনা কমিটির সদস্যগণ কৌশলে মতায় আসার জন্যে প্রহসন মূলক নির্বাচন প্রক্রিয়ায় করে প্রতিদন্দিতা করার জন্যে নমিনেশন ফর্ম সংগ্রহ ও জমা দিয়েছেন এবং চুরান্ত বাছাইপর্বে বৈধ তালিকায় তাদের নাম এসেছে। সদস্যদের অভিযোগ, ২০১৬-২০১৭ জুনের নিরীা প্রতিবেদনের ২৬ নং পৃষ্টায় কালব নিরীক কর্তৃক পর্যবেক্ষন পর্যালোচনা শিরোনামে বর্তমান ব্যবস্থাপনা কমিটির দায়িত্ব পাললে অবহেলা সংক্রান্ত যে ১০টি পয়েন্ট উল্লেখ করেছেন, সেই নিরিখে বর্তমান কমিটির প্রার্থীগণ প্রত্যক্ষ্য পরোক্ষভাবে  আর্থিক কেলেংকারীর সাথে যুক্ত রয়েছেন বলে প্রতিয়মান হয়।

তাদের দায়িত্বের অবহেলার কারণে আবিমা আদিবাসী কো-অপারেটিভ ক্রেডিট ইউনিয়ন লি: বর্তমানে দেউলিয়াতে উপনীত হয়েছে। তাদের দুর্নিতি ও অদতাকে আড়াল করার জন্যেই আবারও পুরাতন ব্যবস্থাপনা করিটির সদস্যগণ কৌশলে মতায় আসার জন্যে প্রহসনমূলক নির্বাচন


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *













©২০১৩-২০১৯ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা
Desing & Developed BY DurjoyBangla
error: Content is protected !!