বুধবার, ২৬ Jun ২০১৯, ১২:০২ অপরাহ্ন

সংবাদ শিরোনামঃ
নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে মহিলা ইউপি সদস্য বিউটি আক্তার কুট্টিকে কুপিয়ে হত্যা সুনামগঞ্জে দুই উপজেলায় দুই লাশ উদ্ধার সুনামগঞ্জে সপ্তম শ্রেণির স্কুলছাত্রী অপহরণের ঘটনায় নারী আসামী গ্রেফতার রাজারহাটে স্কুল শিক্ষক মনিবুলের লটকন চাষে সাফল্য নীলফামারীতে নতুন জেলা প্রশাসক হাফিজুর রহমান চৌধুরীর যোগদান জৈন্তাপুরের স্কুল ছাত্র শামীম বাঁচতে চায় ডিআইজি মিজানুর রহমানকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। মুক্তাগাছা টু ময়মনসিংহ রুটে বিআরটিসি বাস সার্ভিসের উদ্বোধন করলেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী  পিসি রোড নিমতলায় ৭৫ কোটি টাকার জায়গা উদ্ধার করলো চসিক ভ্রাম্যমান আদালত আওয়ামীলীগ এই উপমহাদেশের প্রাচীন সুসংগঠিত রাজনৈতিক দল, কেউ ধ্বংস করতে পারবে না-শেখ হাসিনা। 




সুনামগঞ্জে শিশু ধর্ষণের পর চিকিৎসা নিতেও বাধা

সুনামগঞ্জে শিশু ধর্ষণের পর চিকিৎসা নিতেও বাধা




বিশেষ প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জ শহরের মল্লিকপুরে এক দিনমজুর বিধবা নারীর প্রথম শ্রেণিতে পড়ুয়া কন্যাকে চকলেট দেওয়ার কথা বলে বসতঘরে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করেছে এক বখাটে।

ধর্ষণের পর চিকিৎসাসেবা নিতেও বাধা দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ধর্ষকের পরিবারের বিরুদ্ধে। আইনি সহায়তা না নিতেও দেয়া হচ্ছে হুমকি ।

গতকাল রোববার(৯জুন) রাতে মহিলা পরিষদ ও স্থানীয় কাউন্সিলরের সহায়তায় শিশুটিকে চিকিৎসার জন্য সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

পরিবার ও সুনামগঞ্জ মহিলা পরিষদ জানায়, শহরের মল্লিকপুরে বিধবা দিন মজুরের ছয় বছরের শিশুটিকে শনিবার রাত ৮টার দিকে ঘরে ডেকে নিয়ে ধর্ষণ করে প্রতিবেশী তেরাব আলীর বখাটে ছেলে রুহুল আমিন (১৯)।
এরপর ধর্ষণের কথা কাউকে না বলার জন্য ভয়ভীতি দেখিয়ে বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়। যন্ত্রণা হলেও বখাটের ভয়ে সে ঘটনাটি মাকে জানায়নি।

কিন্তু শারীরিক যন্ত্রণা সইতে না পেরে শিশুটি রোববার বিকালে প্রতিবেশী ভাবির কাছে ঘটনাটি খুলে বলে। তখন ভাবি তার মাকে ঘটনাটি জানায়। এ সময় তিনি মেয়েকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসতে চাইলে রুহুল আমিনের বাবা, মা, বোন ও বোন জামাই তাদেরকে হাসপাতালে আসতে বারণ করে। এক পর্যায়ে তাদের অবরুদ্ধ করে রাখে।

আশপাশের মানুষ জড়ো হলে তারা অসুস্থ মেয়েকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়ার কথা বলেন। খবর পেয়ে সুনামগঞ্জ মহিলা পরিষদ ও স্থানীয় কাউন্সিলর শিশুটিকে হাসপাতালে নিয়ে যায় এবং শিশুটির মাকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেয়। অবশেষে গতকাল রবিবার(৯জুন) রাত ৮টার দিকে শিশু কন্যাকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করিয়েছেন মা। এদিকে মেয়েকে হাসপাতালে ভর্তি করার পর ধর্ষকের পরিবার হুমকি ধমকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, শনিবার রাত ৮টার দিকে নিজ বসবাড়ির রাস্তায় ছিল বিধবা দিনমজুর নারীর পিতৃহীন কন্যা। এসময় প্রতিবেশি তেরাব আলীর বখাটে ছেলে রুহুল আমিন (১৮) ওই শিশুকে চকলেট দেওয়ার কথা বলে তার বসতঘরে ডেকে নেয়। এসময় ওই বসতঘরে কেউ ছিল না। এই সুযোগে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। আসার সময় এ ঘটনা কাউকে খুলে না বলার জন্য হুমকি দেয়। ওই শিশুকন্যা বসতঘরে এসে রাতে ঘুমিয়ে পড়ে। রাতে তার প্রচন্ড জ্বড় ওঠে ও ব্যথা শুরু হয়। দিনমজুর বিধবা মা ঘটনা জানতে চাইলে সে বখাটের হুমকির বিষয়টি মনে করে চেপে যায়। রবিবার বিকেলে প্রতিবেশি চাচাতো ভাইয়ের বউয়ের কাছে এ ঘটনা খুলে বললে ওই নারী তাৎক্ষণিকভাবে শিশুর মাকে বিষয়টি জানান।

এব্যাপারে পৌরসভার কাউন্সিলর আহমেদ নূর বলেন, ঘটনাটি জানার পর তাকে হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দিয়ে সব রকমের সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছি।

এ ব্যপারে সদর থানার ওসি মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ পাঠিয়ে শিশুটির চিকিৎসা নিশ্চিত করেছি। অভিযুক্তদের গ্রেফতারে অভিযান চালানোরও নির্দেশ দিয়েছি।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *













পিকনিক বুকিং চলছে!

©২০১৩-২০১৯ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা
Desing & Developed BY DurjoyBangla
error: Content is protected !!