13.7 C
New York
বৃহস্পতিবার, জুন ১৭, ২০২১

অশ্বিনের হয়ে মাঞ্জরেকারের বিপক্ষে ব্যাট করলেন চ্যাপেল

খেলাধুলা ডেস্ক:

বিজ্ঞাপন

৭৮ টেস্টে ২৪.৬৯ গড়ে ৪০৯ উইকেট। ওয়ানডেতে ১১১ ম্যাচ খেলে উইকেট ১৫০টি। টি-টোয়েন্টিতে তাঁর শিকার ৫২ উইকেট। সব মিলিয়ে রবিচন্দ্রন অশ্বিনকে অনেকেই সর্বকালের সেরা বোলারদের কাতারে রাখছেন। কিন্তু ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান সঞ্জয় মাঞ্জরেকার এটা মানতে পারছেন না। অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি ক্রিকেটার ইয়ান চ্যাপেল আবার অশ্বিনকে নিয়ে মাঞ্জরেকারের এই বক্তব্য মানছেন না। ভারতীয় স্পিনারকে নিয়ে মাঞ্জরেকারের সঙ্গে তর্ক করতে গিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি ফাস্ট বোলার জোয়েল গার্নারকে টেনে এনেছেন চ্যাপেল

বিজ্ঞাপন

অশ্বিনকে সেরাদের কাতারে না ফেলার পেছনে অবশ্য যুক্তি দেখিয়েছেন ধারাভাষ্যকার ও ক্রিকেট পণ্ডিত মাঞ্জরেকার। ইংল্যান্ড, অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকা—এই চারটি দেশে এখনো টেস্টের এক ইনিংসে ৫ উইকেট পাওয়া হয়নি অশ্বিনের। মাঞ্জরেকারের কথা, এ চারটি দেশে যদি কোনো বোলার ইনিংসে ৫ উইকেট না পান, তাহলে তিনি কীভাবে সেরাদের কাতারে নাম লেখাবেন!

মাঞ্জরেকার এখানেই থামেননি; ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান এমনও বলেছেন যে দেশটির আরেক স্পিনার রবীন্দ্র জাদেজার মানও অশ্বিনের মতোই। অশ্বিন যে সেরা বোলারদের কাতারে নন, এটা প্রমাণ করতে মাঞ্জরেকার সদ্যই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখা অক্ষর প্যাটেলের উদাহরণও দিয়েছেন।
জাদেজা ভারতের হয়ে ৫১ টেস্ট খেলে ২৪.৩২ গড়ে ২২০ উইকেট নিয়েছেন। ওয়ানডেতে অবশ্য অশ্বিনের চেয়ে তাঁর রেকর্ড ভালো। ১৬৮ ম্যাচে নিয়েছেন ১৮৮ উইকেট। টি-টোয়েন্টি ৫০ ম্যাচে ৩৯ উইকেট তাঁর। তা পরিসংখ্যান যেটাই বলুক, এমন একজনের সঙ্গে অশ্বিনকে এক কাতারে ফেলাটা হয়তো অনেকেরই মেনে নিতে কষ্ট হবে। আর মাত্র ৩ টেস্ট খেলা অক্ষরের সঙ্গে অশ্বিনকে মেলানোটা তো মেনে নিতে পারবেনই না।

বিজ্ঞাপন

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের পর ভারতের টেস্ট সিরিজটা ইংল্যান্ডের বিপক্ষে বলেই অক্ষরের প্রসঙ্গটি টেনে এনেছেন মাঞ্জরেকার। ইংল্যান্ডের বিপক্ষে দেশের মাটিতে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে অক্ষর আর অশ্বিনের পারফরম্যান্সের তুলনা করেছেন ভারতের সাবেক ব্যাটসম্যান। তিনি বলেছেন—ওই সিরিজে অক্ষর ৩ ম্যাচ খেলে নিয়েছেন ২৭ উইকেট। আর অশ্বিন চার ম্যাচ খেলে ৩২ উইকেট পেয়েছেন।
ক্রিকেটবিষয়ক খবরের ওয়েবসাইট ইএসপিএনক্রিকইনফোর একটি অনুষ্ঠানে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেছেন মাঞ্জরেকার। সেই অনুষ্ঠানে বিশেষজ্ঞ হিসেবে ছিলেন চ্যাপেলও। মাঞ্জরেকারের কথা বলা শেষ হতে না হতেই উত্তর দিতে শুরু করেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক। সেই উত্তর দিতে গিয়েই গার্নারকে টেনে আনেন চ্যাপেল। মাঞ্জরেকারকে উল্টো প্রশ্ন করে বসেন—জোয়েল গার্নার কতবার ৫ উইকেট নিয়েছেন?

৫৮ টেস্টের ক্যারিয়ারে ২০.৯৭ গড়ে ২৫৯ উইকেট নিয়েছেন গার্নার। ক্যারিয়ারে ৫ উইকেট ৭টি। এর মধ্যে চারটিই বিদেশের মাটিতে—অস্ট্রেলিয়া ও ইংল্যান্ডে একবার করে, নিউজিল্যান্ডে দুবার। ক্যারিয়ারে খুব বেশিবার ৫ উইকেট পাননি বলে কি গার্নারকে কিংবদন্তি বলা হবে না—চ্যাপেলের প্রশ্নটি ছিল এ রকমই।
৭৭ বছর বয়সী চ্যাপেল বলেছেন, ‘আমি এখানে দুটি বিষয় নিয়ে বলতে চাই—আপনি যদি জোয়েল গার্নারের দিকে তাকান, আমি বলতে চাইছি সে কবার ৫ উইকেট নিয়েছে? আপনি যখন সে কত ভালো আর তার রেকর্ড বিবেচনা করতে যাবেন, দেখবেন খুব বেশি ৫ উইকেট নেই তার। এর কারণ সে আরও তিনজন খুব, খুব ভালো খেলোয়াড়ের সঙ্গে খেলত। বিশেষ করে শেষের দিকে। আমি লক্ষ করেছি যে ভারতের বোলিং আক্রমণ এত শক্তিশালী যে উইকেট ভাগাভাগি হয়ে যায়।’

বিজ্ঞাপন

সর্বশেষ সিরিজে অক্ষর প্যাটেল কেন এত বেশি উইকেট পেয়েছেন, সেটার ব্যাখ্যা দিতে গিয়েও অশ্বিনকে কৃতিত্ব দিয়েছেন চ্যাপেল, ‘অশ্বিনের নামের কারণে ইংল্যান্ডের খেলোয়াড়েরা তাকে বেশি মনোযোগ দিয়ে খেলেছে।’ চ্যাপেলের কথা—অশ্বিনের বলে রক্ষণাত্মক খেলে উইকেট ধরে রাখতে চেয়েছে ইংলিশরা। আর অক্ষরকে আক্রমণ করতে গিয়ে উইকেট দিয়ে ফিরেছে তারা।

আরো পড়ুন:বিদেশে শুটিং, বিদেশিদের নিয়ে শুটিং, দুটোতেই লাগবে অনুমতি!

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ সংবাদ

x
error: Content is protected !!