আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষে মোটরসাইকেলে আগুন,ভাংচুর।

বিভাগীয় ব্যুরো চীফ,ঢাকা।।

ঢাকার আজিমপুর এলাকায় প্রায় আধা ঘণ্টা ধরে মারপিটের ঘটনা ঘটে। সামনে থাকা ২০টির মতো মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও তিনটিতে আগুন দেওয়া হয়। মোটরসাইকেলগুলো দুপক্ষের নেতাকর্মীদের বলে জানা গেছে। মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন ও মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম মুরাদের অনুসারীরা জড়িয়ে পড়েন।

সকালে একই স্থানে সভা ও মিছিলের চেষ্টা করে মেয়র খোকনের গ্রুপের লোকজন। সমাবেশের অনুমতি না থাকায় মেয়র গ্রুপকে সেখান থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করলে তারা পুলিশের ওপর চড়াও হয়। একপর্যায়ে তারা পুলিশকে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে।ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে ।

কর্মসূচিস্থলে ময়লার স্তূপ থাকার জেরে রণক্ষেত্র পরিণত হয়েছে আজিমপুর এলাকা। আজ সকালে রাজধানীর লালবাগ থানা আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আওয়ামী দলীয় সদস্য নবায়ন এবং প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ অনুষ্ঠানস্থল আজিমপুর পার্ল হারবার কমিউিনিটি সেন্টারের সামনে বিশাল ময়লার স্তূপ রাখা ছিল।

গতকাল রাতে পরিছন্ন কমিউনিটি সেন্টারের সামনে রাতের বেলায় দুই ট্রাক ময়লা ফেলে যাওয়ার পর থেকেই দুর্গন্ধে কেউ সেখানে দাঁড়িয়ে থাকতে পারছিল না।পাশেই ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের আজিমপুর শাখা।
আজ (বৃহস্পতিবার) বেলা সাড়ে ১১টায় আওয়ামী লীগের কর্মী সমাবেশ ডেকেছে ঢাকা দক্ষিণ মহানগর আওয়ামী লীগ। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় দলীয় এই কর্মসূচি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন আওয়ামী লীগের দলীয় যুগ্ম সম্পাদক দীপু মনি এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে থাকবেন খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ।

আজিমপুর কমিউনিটি সেন্টারের দলীয় কর্মসূচি ছিল পূর্বনির্ধারিত। দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশেই এই কর্মসূচি হওয়ার কথা।

এ ব্যাপারে শাহে আলম মুরাদ বলেন, ‘আমরা সুন্দর একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি। কিন্তু সিটি করপোরেশনের কারো ইন্ধন ছাড়া এখানে ময়লা ফেলতে সাহস পাবে না কেউ। ময়লা কারো না কারো ইন্ধনে এখানে ফেলা হয়েছে। এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি এ বিষয়ে এখনও কিছু জানি না। অফিসে যাচ্ছি, গিয়ে খোঁজ নিতে হবে। অন্যদিকে পাশেই ভিকারুন্নিসা স্কুলের আজিমপুর শাখা, আর ময়লার পচা গন্ধে স্কুলের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকদের অনেকেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন।

অভিযোগ উঠেছে, মহানগর আওয়ামী লীগের দলীয় কোন্দলের অংশ হিসেবেই প্রতিপক্ষ একটি গ্রুপ সেখানে পরিকল্পিতভাবে ময়লার স্তূপ রেখে গেছে। ওই ঘটনার পর মহানগর আওয়ামী লীগ এবং লালবাগ আওয়ামী লীগের নেতারা ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন।পাশেই ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র সাঈদ খোকন পাল্টা কর্মসূচি দিয়েছেন।
বিষয়টি নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।দু’পক্ষের মাঝে সংঘর্ষের সমাবেশস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here