একজন শিক্ষক একজন অভিভাবক

একজন শিক্ষক একজন অভিভাবক

দেওয়ানগঞ্জ প্রতিনিধিঃ জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার সানন্দবাড়ী একটি বহুল পরিচিত নাম, সেখানে মানুষ গড়ার একটি মাধ্যমিক প্রতিষ্ঠান যার নাম সানন্দবাড়ী বহুমুখী উচ্চবিদ্যালয়। ১৯৮১ সাল হতে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সুনামের সহিত শিক্ষকতা করেছেন মোঃ আজিজুর রহমান । তাঁর পড়ানোর বিষয় জীব বিজ্ঞান ও কৃষি শিক্ষা। যত দূর্বল শিক্ষার্থীই হোক না কেন, স্যারের পড়ানোর সুকৌশল শিক্ষার্থীদের মস্তিষ্কে পড়া ঢুকবেই। শিক্ষকতা জীবনে তিনি পড়াশোনার পাশাপাশি বাস্তব জীবনে উদ্যোক্তা হবার নানা কৌশল ও পরামর্শ দিতেন ছাত্র/ছাত্রীদের।



তার গড়া অগণিত ছাত্র সরকারি সর্বোচ্চ পদ ছাড়াও হয়েছে গায়ক, নায়ক, আর্টিস্ট। এছাড়াও তিনি লিখেছেন দুই শতাধিক কবিতা। তার কবিতায় উঠে আসে এলাকার নানা সমস্যা ও সমাধান, বাল্য বিবাহ, যৌতুকের কুফল সহ সমাজের বাস্তব চিত্র। উল্লেখ যোগ্য কবিতা গুলোর মধ্যে আছে শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী,আজব মাছ, অবসর, সখের তরমুজ, কালু, কমিউনিটি ক্লিনিক, বাল্যবিবাহ সহ শিক্ষণীয় কবিতা।
ব্যক্তি জীবনে তার পাঁচ মেয়ে ও স্ত্রী আছে, তিনি সকল মেয়েদের বিয়ে দিয়ে যথাযথ বাবার দায়িত্ব পালন করেছেন। বর্তমানে সংসারে সদস্য স্বামী স্ত্রী দুই জনই। তিনি লেখা পড়া শেষ করে চাকরির পাশাপাশি পল্লী চিকিৎসা সেবা করে আসছেন। গরীব অসহায় মানুষদের বিনা পয়সায় চিকিৎসা সেবা দেয়ায় তার বাবা নওজেশ আলীর সুনাম ধরে রেখেছেন তিনি।



তার প্রিয় খাবার -মিষ্টি, প্রিয় ব্যক্তি -এম এ বারী আকন্দ,
অপছন্দ – মিথ্যাবাদী ও মিথ্যা কথা। এই গুণী শিক্ষক প্রায় চার যুগ সময় যাবৎ মোটর সাইকেল চালালেও আজ পর্যন্ত কোন রকম দুর্ঘটনায় পতিত হন নি। এ সম্পর্কে তার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান- আমি কখনও দ্রুতগতিতে গাড়ি চালাই না, ওভারটেক করার চেষ্টা করি না, গাড়িতে উঠার আগেই যান্ত্রিক আছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করি। আসল কথা হল মোটর যান আইন অনুযায়ী চলার কারনেই হয়তো কোন বিপদে পরিনি। সবাইকে ট্রাফিক আইন মেনে চলার পরামর্শও দেন তিনি। হাজার হাজার মেধা বিকাশের কারিগর আলহাজ্ব আজিজুর রহমান ২০১৫ সালে পবিত্র হজ্জ পালন করেন। এরপর হতে নিয়মিত শুক্রবার এলাকার তথা দেশের বিভিন্ন মসজিদে মসজিদে খুৎবার পূর্বে ধর্মীয় আলোচনা করা তার নেশা হয়ে দাড়িয়েছে।

আরো পড়ুন>>>ময়মনসিংহ ডিবি’র অভিযানে গার্মেন্টস কর্মী রফিকুল হত্যার মূল আসামী গ্রেফতার

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here