এক ইউএনও দুই উপজেলায় দৌড়াদৌড়ি!

সহকারী বার্তা সম্পাদক

0
1

জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নিয়োগ না দিয়ে হঠাৎ করে স্ট্যান্ড রিলিজ করায় বিপাকে পড়েছে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার মানুষ।

এদিকে বকশীগঞ্জের ইউএনওকে দেওয়ানগঞ্জে অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়ায় কর্মস্থলে অনুপস্থিতের কারণে ভোগান্তিতে রয়েছে বকশীগঞ্জের মানুষ।

জানা যায়, ৭ সেপ্টেম্বর হঠাৎ করেই স্ট্যান্ড রিলিজ করে দেওয়ানগঞ্জের ইউএনও এ.কে.এম আব্দুল্লাহ বিন রশিদকে। এরপর থেকে দেওয়ানগঞ্জ প্রশাসনিক শুন্যতা বিরাজ করে।

পরবর্তীকালে বকশীগঞ্জের ইউএনও মুনমুন জাহান লিজাকে দেওয়ানগঞ্জের ইউএনও হিসেবে অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়া হয়। অতিরিক্ত দায়িত্ব দেওয়ায় মুনমুন জাহান লিজা বেশিরভাগ সময়ই বকশীগঞ্জ কর্মস্থলে অনুস্থিত থাকায় ভোগান্তিতে পড়েছে বকশীগঞ্জের মানুষ।

দেওয়ানগঞ্জ ও বকশীগঞ্জের মধ্যে দূরুত্ব ১৭ কিলোমিটার হলেও অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থার কারণে দুই উপজেলায় যাতায়াতে সময় ব্যয় হয় ঘণ্টারও বেশি।

আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস, জলাতঙ্ক দিবস, ভোক্তা অধিকার দিবসসহ গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা সভায় বকশীগঞ্জের মুনমুন জাহান লিজার অনুপস্থিতেই করা হয়েছে। এছাড়া কন্যা দিবসে বকশীগঞ্জে শুধু ফটোসেশন করেই এক উপজেলা থেকে আরেক উপজেলায় দৌড়াদৌড়ি ইউএনও লিজাকে।

এদিকে দেওয়ানগঞ্জে গুরুত্বপূর্ণ সহকারী কমিশনার (ভূমি) পদটিও দীর্ঘদিন শুন্য থাকায় কার্যত প্রশাসনিক শুন্যতা বিরাজ করছে দেওয়ানগঞ্জে।

এ বিষয়ে জামালপুর জেলা প্রশাসক মুর্শেদা জামান জানান, দেওয়ানগঞ্জে বর্তমানে শেরপুর সদর উপজেলায় কর্মরত শেরপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ফিরোজ আল মামুনকে বদলি করা হয়েছে।

এই বদলি আদেশ কার্যকর হলে এই সমস্যা সমাধান হবে।

আরও পড়ুনঃ ঝিনাইগাতীর গজনী অবকাশকে দৃষ্টি নন্দন করতে ঝুলন্ত ব্রীজ ও ক্যাবল কারের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন