কেন্দুয়ায় সংঘর্ষে ৩ নারীসহ আহত ৭

রাখাল বিশ্বাস, কেন্দুয়া (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি

0
1
live_breaking_news

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় জমি সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জেরে পৃথক সংঘর্ষে ৩ নারীসহ ৭জন মারাত্মক আহত হয়েছেন। তার মধ্যে ২ নারীসহ ৩জনকে আশঙ্খাজনক অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।

তারা হলেন ইজ্জত আলী (৬০) ও তার স্ত্রী স্বপ্না বেগম (৫০)। পৃথক ঘটনায় কাশিপুর গ্রামের সাবিনা ইয়াসমিনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফর করা হয়। পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে বৃহস্পতিবার (২৫ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা বলাইশিমুল ইউনিয়নের বলাইশিমুল গ্রামে ইজ্জত আলী ও সোনামিয়া গংদের মাঝে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। বৃহস্পতিবার সকালো ধান কাটাতে হাওড়ে গেলে ইজ্জত আলী গংদের উপরে সোনমিয়া গংরা দাড়ালো অস্ত্র নিয়ে হামলা করে।

পরে মারাত্মক আহত ইজ্জত আলী (৬০) ও তার স্ত্রী স্বপ্না বেগম (৫০) কে কেন্দুয়া উপজেলা হাসপতালে নিয়ে এলে মুমর্ষ অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়। খবর পেয়ে কেন্দুয়া থানার পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেন। এদিকে উপজেলা চিরাং ইউনিয়নের কাশিপুর গ্রামে মারামারিতে মারাত্মক আহত মুর্ত্তজ আলীর স্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন (৩০) ও সালেহা আক্তার (৬০) কে উপজেলা হাসপাতালে নিয়ে এলে চিকিৎসক সাবিনা ইয়াসমিনকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। অন্যারা প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

কেন্দুয়া থানার ওসির দায়িত্বে থাকা পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সাইফুল ইসলাম জানান, বলাইশিমুল গ্রামের ২ পক্ষের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে এবং মামলা মোকদ্দমাও রয়েছে। পুলিশ গিয়ে সংঘর্ষে নিয়ন্ত্রন করে। অপরদিকে নওপাড়া-গোপালপুর সড়কে বৃহস্পতিবার দুপুরে বহুলী এলাকায় অটো রিক্সাকে ট্রাক্টর চাপা দিলে বহুলি গ্রামের হাসান (৮) ও জুবায়ের (৮) নামে ২ শিশু মারাত্মক আহত হয়। তাদেরকে উদ্ধার করে উপজেলা হাসপাতালে নিয়া এলে মুমুর্ষ অবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন চিকিৎসক।

আরও পড়ুন: কেন্দুয়ায় ছুরিকাঘাতে যুবক খুন: আটক ১