1. durjoybangla24@gmail.com : durjoy bangla : durjoy bangla
  2. afzalhossain.bokshi13@gmail.com : Afjal Sharif : Afjal Sharif
  3. aponsordar122@gmail.com : Apon Sordar : Apon Sordar
  4. awal.thakurgaon2020@gmail.com : abdul awal : abdul awal
  5. sheblikhan56@gmail.com : Shebli Shadik Khan : Shebli Shadik Khan
  6. jahangirfa@yahoo.om : Jahangir Alam : Jahangir Alam
  7. mitudailybijoy2017@gmail.com : শারমীন সুলতানা মিতু : শারমীন সুলতানা মিতু
  8. nasimsarder84@gmail.com : Nasim Ahmed Riyad : Nasim Ahmed Riyad
  9. netfa1999@gmail.com : faruk ahemed : faruk ahemed
  10. mdsayedhossain5@gmail.com : Md Sayed Hossain : Md Sayed Hossain
  11. absrone702@gmail.com : abs rone : abs rone
  12. sumonpatwary2050@gmail.com : saiful : Saiful Islan
  13. animashd20@gmail.com : Animas Das : Animas Das
  14. Shorifsalehinbd24@gmail.com : Shorif salehin : Shorif salehin
  15. sbskendua@gmail.com : Samorendra Bishow Sorma : Samorendra Bishow Sorma
  16. swapan.das656@gmail.com : Swapan Des : Swapan Des
গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহি কুপি বাতি বিলুপ্তির পথে এখন শুধুই স্মৃতি - durjoy bangla | দুর্জয় বাংলা
শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ১২:০২ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ




গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহি কুপি বাতি বিলুপ্তির পথে এখন শুধুই স্মৃতি

দুর্জয় বাংলা ডেস্কঃ
  • শুক্রবার, ১২ জুন ২০২০, ১:০২ পূর্বাহ্ণ
  • ২১৪ বার পঠিত

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ

ঝিনাইদহে আধুনিক বৈদ্যুতিক যুগে বর্তমানে আবহমান গ্রাম বাংলার এক সময়ের কুপি বাতি এখন শুধুই স্মৃতি। মাত্র ৭/৮ বছর আগেও গ্রামের প্রতিটি বাড়িতে অতি প্রয়োজনীয় কুপি বাতি আজ বিলুপ্তির পথে।

সন্ধা হলেই ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাগান্না, সাধুহাটি ও মধুহাটি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রাম্য ও গ্রাম্য বাজারে কুপির মিটমিটে আলোও চেনা যেত হাট বাজারসহ গ্রামের সেই চির চেনা রুপ। শুধু তাই নয় সেকালের রাজ প্রাসাদেও ছিল বাহারী রকমের কুপি বাতি। ঝিনাইদহের সাগান্না, সাধুহাটি ও মধুহাটি ইউনিয়নের গ্রাম গুলো এখন তা শুধুই স্মৃতি।হয়তো এমনও সময় আসছে যখন ছেলে মেয়েদের কুপি বাতি চেনানের জন্য যাদু ঘরে নিয়ে যেতে হতে পারে। আগের দিনের মানুষের ছিল নানা ধরনের বাহারি কুপি আর সেই কুপিই ছিল মানুষের অন্ধকার নিবারনের একমাত্র অবলম্বন। কিন্তু কালের আবর্তে ঝিনাইদহ আধুনিক বৈদ্যুতিক যুগে বর্তমানে সেই কুপি বাতির স্থান দখল করে নিয়েছে বাহারী বৈদ্যতিক বাল্ব, চার্জার লাইট, টর্চ লাইট, মোবাইল লাইটসহ আরো অনেক কিছু। ফলে ক্রমেই হারিয়ে যাচ্ছে আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যময় এই নিদর্শনটি।

ঝিনাইদহের সাগান্না, সাধুহাটি ও মধুহাটি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে একটা সময় ছিল যখন গ্রাম বাংলার আপামর জনসাধারনের অন্ধকারে আলোকবর্তীকার কাজ করত কুপি ঝিনাইদহের বর্তমান মিনি শহর ডাকবাংলায় আলোর জন্য ব্যবহার হতো বাহারি ডিজাইন ও রংয়ের এই কুপি বাতি। সাগান্না, সাধুহাটি ও মধুহাটি ইউনিয়নে তৎকালিন সময়ে মানুষ মাটি, বাঁশ,লোহা,কাঁচ আবার কোনটি তৈরী করতো পিতল দিয়ে।সামর্থ অনুযায়ী লোকজন কুপি কিনে সেগুলো ব্যবহার করত। ডাকবাংলা বাজারে সাধারনত বিভিন্ন ধরনের কুপি পাওয়া যেত। কুপি হতে বেশি আলো পাওয়ার জন্য ছোট কুপি গুলোর জন্য কাঠ, মাটি বা কাঁচের তৈরি গজা বা স্ট্যান্ড ব্যবহার করা হতো। এই গজা বা স্ট্যান্ড গুলো ছিল বিভিন্ন ডিজাইনের। কিন্তু বর্তমানে গ্রামে গ্রামে বিদ্যুতের ছোঁয়ায় সেই কুপি বাতি হারিয়ে গেছে।

বিদ্যুত না থাকলেও অবশিষ্ট সময় মানুষ ব্যবহার করছে বিভিন্ন ধরনের চার্জার লাইট ও মোমবাতি। ৩ নং সাগান্না ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলাউদ্দিন আল-মামুন এর কাছে এবিষয়ে জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদককে জানান, আধুনিক বৈদ্যুতিক যুগে বর্তমানে কুপি বাতির স্থান দখল করে নিয়েছে বাহারী বৈদ্যতিক বাল্ব, চার্জার লাইট, টর্চ লাইট, মোবাইল লাইটসহ আরো অনেক কিছুতেই।

ফলে ক্রমেই হারিয়ে যাচ্ছে আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যময় এই নিদর্শনটি। সুতরাং গ্রামের অধিকাংশ লোকের কাছে কুপির কদর হারিয়ে গেলেও এখনও অনেক লোক আছেন যারা আঁকড়ে ধরে আছেন কুপির সেই স্মৃতি। আজও গ্রামের সৌখিন গৃহস্ত বাড়িতে আবার অনেক নিম্ন আয়ের মানুষ সযতে কুপি বাতি সংরক্ষন করে রেখেছেন নিদর্শন হিসেবে।

আপনার মতামত লিখুনঃ
নিউজটি সেয়ার করার জন্য অনুরোধ রইল!
এই জাতীয় আরো সংবাদ
durjoybangla.conlm_৮ বছরে







©২০১৩-২০২০ সর্বস্তত্ব সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা

কারিগরি সহযোগিতায় দুর্জয় বাংলা