1. durjoybangla24@gmail.com : durjoy bangla : durjoy bangla
  2. afzalhossain.bokshi13@gmail.com : Afjal Sharif : Afjal Sharif
  3. aponsordar122@gmail.com : Apon Sordar : Apon Sordar
  4. awal.thakurgaon2020@gmail.com : abdul awal : abdul awal
  5. sheblikhan56@gmail.com : Shebli Shadik Khan : Shebli Shadik Khan
  6. jahangirfa@yahoo.om : Jahangir Alam : Jahangir Alam
  7. mitudailybijoy2017@gmail.com : শারমীন সুলতানা মিতু : শারমীন সুলতানা মিতু
  8. nasimsarder84@gmail.com : Nasim Ahmed Riyad : Nasim Ahmed Riyad
  9. netfa1999@gmail.com : faruk ahemed : faruk ahemed
  10. mdsayedhossain5@gmail.com : Md Sayed Hossain : Md Sayed Hossain
  11. absrone702@gmail.com : abs rone : abs rone
  12. sumonpatwary2050@gmail.com : saiful : Saiful Islan
  13. animashd20@gmail.com : Animas Das : Animas Das
  14. Shorifsalehinbd24@gmail.com : Shorif salehin : Shorif salehin
  15. sbskendua@gmail.com : Samorendra Bishow Sorma : Samorendra Bishow Sorma
  16. swapan.das656@gmail.com : Swapan Des : Swapan Des
জেঠা কর্তৃক মার্কেট দখলের চক্রান্ত: বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় শঙ্কিত ওয়ারিশরা - durjoy bangla | দুর্জয় বাংলা
শুক্রবার, ১৪ অগাস্ট ২০২০, ১১:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ




জেঠা কর্তৃক মার্কেট দখলের চক্রান্ত: বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় শঙ্কিত ওয়ারিশরা

দুর্জয় বাংলা ডেস্কঃ
  • শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ
  • ২৬৫ বার পঠিত

 

জাহাঙ্গীর আলম নির্বাহী সম্পাদকঃঃ

চট্টগ্রাম নগরীর নুপুর মার্কেটের স্বত্বাধিকারী ডা.আহমদ ফয়সাল চৌধুরীসহ ওয়ারিশদের মালিকানা বঞ্চিত করার ষড়যন্ত্র করছে শহেদ আজগর চৌধুরী। আর এ কারণে নুপুর মার্কেটের স্বত্বাধিকারী ডা. আহমদ ফয়সাল চৌধুরীহর বৈধ উত্তরাধিকারীরা সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত হওয়ার আশঙ্কায় জীবন নিয়ে শঙ্কিত। এ নিয়ে গত ২৪ এপ্রিল দুপুর সাড়ে ১১ টায় চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। লিখিত বক্তব্যে ডা. আহমদ ফয়সাল চৌধুরী জানান, নুপুর মার্কেটের ২য় তলায় স্থিত আমাদের ভাড়ায় লাগিয়ত নিউ মদিনা হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট শাহেদ আজগর চৌধুরী প্রতারণামূলকভাবে আত্মসাতের জন্যে কতেক ব্যক্তির সাথে যোগসাজশে ৩য় পক্ষের নিকট সেলামীতে
আমাদের অনুমতি ব্যতীত বিক্রয়ের জন্য ভাংচুর করলে কোতোয়ায়ালী থানায় সাধারণ ডায়েরী নং ১৪৯৯ তাং ২০/০৪/২০১৯ ইং দায়েরপূর্বক থানা পুলিশের সহায়তা
চাইলেও পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা না নেওয়ায়, আমার চাচা শাহেদ আজগর চৌধুরীর ইন্ধনে তারা এখনো আমাদের দোকানে ভাংচুর করতেছে। কোতোয়ালী থানায় প্রতিকার চেয়েও প্রতিকার পাচ্ছি না।
লিখিত বক্তব্যে ডা. আহমদ ফয়সাল চৌধুরী আরো জানান, আমার চাচা শাহেদ আজগর চৌধুরী এমডি হিসেবে ভাড়া বাবদ, মার্কেটের দোকান ট্রান্সফার বাবদ, দোকান বিক্রয় বাবদ কোম্পানীর কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করেন। তিনি এমডি না হয়েও কোম্পানীর সম্পত্তি কখনো এমডি পরিচয়ে, আবার কখনো সম্পত্তিকে নিজের ব্যক্তিগত সম্পত্তি হিসেবে বিভিন্ন জনের কাছে বিক্রয় করে দেন। তিনি নুপুর
মার্কেটের ২য় তলায় স্থিত কোম্পানীর ৪০২২ বর্গফুট অফিস স্পেসের এমডি দাবী করে মো. আবুল কাশেমের নিকট বিক্রয় করে সমুদয় অর্থ আত্মসাৎ করেন। কোম্পানীর সম্পত্তিকে ব্যক্তিগত সম্পত্তি দাবী করে তিনি নুপুর মার্কেটের ৩য় তলায় স্থিত ৪০২২ বর্গফুট অফিস স্পেস মো. নুরুন্নবীর নিকট বিক্রয় করে
উক্ত টাকা নিজের একাউন্টে জমা করে। আমার চাচা কোম্পানীর বিভিন্ন সম্পত্তি এখনো নিজেকে এমডি দাবী করে এবং কখনো কখনো ব্যক্তিগত সম্পত্তি দাবী করে বিভিন্ন জনের নিকট অবৈধভাবে বিক্রয় করে কোম্পানীর কোটি কোটি টাকা আত্মসাৎ করায় আমি সাহেদ আজগর চৌধুরীর বিরুদ্ধে বিজ্ঞ আদালতে সি. আর. মামলা নং-১৩২৬/১৮ এবং সি. আর. মামলা নং-১০৯৩/১৭ ইং দায়ের করলে উক্ত মামলা ২টি
যথাক্রমে ফৌ: কার্যবিধির ৪০৬ এবং অপরটি ৪২০ ধারায় অভিযোগ গঠন করার পর তার
বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট ইস্যু করার পর বর্তমানে তিনি জামিনে আছেন। লিখিত বক্তব্যে ডা. আহমদ ফয়সাল চৌধুরী জানান, আমার পিতাসহ অপর ৩ ভাই একমত
হয়ে আমাদের যৌথ পরিবারের যাবতীয় সহায় সম্পত্তি ও নগদ মূলধন দিয়ে ১৯৭৪ সালে নুপুর এন্টারপ্রাইজ লি: নামে একটি কোম্পানী গঠন করেন। উক্ত
কোম্পানীর নামে ৩৭ গন্ডা জায়গা প্রদান করার পর কোম্পানী উক্ত জমির উপর ৭ তলা বিশিষ্ট নুপুর মার্কেট নির্মাণ করেন, যাহাতে প্রায় ৭২৮ টি দোকান
রয়েছে। উক্ত কোম্পানী প্রতিষ্ঠান ২২ বছর ভালভাবে চললেও উক্ত কোম্পানী ১৯৯৬ সালের পর কোন অডিট না হওয়ায়, রিটার্ন জমা না দেওয়ায়, বোর্ড মিটিং, সাধারণ সভ ও বৈধা রেজুলেশন না হওয়ায় উক্ত কোম্পানী একটি মৃত ও অকার্যকর কোম্পানীতে পরিণত হয়। তখন কোম্পানীর অন্যান্য পরিচালকগণ নিজের ব্যক্তিগত ব্যবসায় আত্মনিয়োগ করেন। সেই সুযোগে কোম্পানীর নামে থাকা শত শত কোটি
টাকার সম্পাদ আত্মসাতের কুউদ্দেশ্যে আমার জেঠা শাহেদ আজগর চৌধুরী নিজেকে স্বঘোষিত এমডি দাবী করেন। কোম্পানীর কোন ধরনের বৈধ কার্যকর না থাকা সত্ত্বেও তিনি এমডি হিসেবে বিভিন্ন জায়গায় স্বাক্ষর করে ৭২৮ টি দোকান ও অফিস স্পেসের ভাড়া ও দোকান ট্রান্সফার ফি গ্রহণ করেন। বিভিন্ন অফিস, ব্যাংক ও সংস্থার এমডি হিসেবে পরিচয় প্রদান ও কাগজে স্বাক্ষর করেন। এভাবে তিনি নুপুর মার্কেটের পুরো সম্পাদ লুণ্ঠন করে চলেছে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করে

আপনার মতামত লিখুনঃ
নিউজটি সেয়ার করার জন্য অনুরোধ রইল!
এই জাতীয় আরো সংবাদ
durjoybangla.conlm_৮ বছরে







©২০১৩-২০২০ সর্বস্তত্ব সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা

কারিগরি সহযোগিতায় দুর্জয় বাংলা