ঝিনাইগাতীর মহারশি নদীর পানি নালিতাবাড়ীতে নেওয়ার উদ্যোগ : ঝিনাইগাতীর হাজারও কৃষকের ব্যাপক ক্ষতির আশংকা।

মোহাম্মদ দুদু মল্লিক শেরপুর প্রতিনিধি :

0
2

শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের নলকুড়া-রাংটিয়া মৌজার মহারশি নদীতে গত ২০১৩ সালে জাপান ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশন এজেন্সি (জাইকা)’র অর্থায়নে এবং এলজিইডি শেরপুরের বাস্তবায়নে মহারশি পানি ব্যবস্থাপনা সমবায় সমিতির নামে একটি রাবার ড্যাম নির্মাণ করা হয়।

রাবার ড্যামটি নির্মাণের পর থেকে এ উপজেলার ১ হাজার ২ শত হেক্টর জমি বোর আবাদের আওতায়ভুক্ত হয়।

আসছে বোর মৌসুমে আরো ১ হাজার ২ শত হেক্টর জমি আবাদের আওতায় আনতে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এছাড়া রাবার ড্যাম থেকে গড়িয়ে পড়া অতিরিক্ত পানি দিয়ে উপজেলার ৪ ইউনিয়নের বনকালী, দিঘীরপাড়, আহম্মদনগর,হলদীবাটা, বনগাও, চতল, হাতীবান্ধা ও তিনানী বাজার পর্যন্ত প্রায় ৫ হাজার হেক্টর জমিতে বোর চাষ করা হয়।

এতে অনেক সময় ঝিনাইগাতীতেই পানির মহাসংকট দেখা যায়।

অপরদিকে ঝিনাইগাতী উপজেলার মহারশি নদীর উত্তর হলদীগ্রামের মৃত মতিউর রহমানের ছেলে আব্দুল্লাহ’র বসত ভিটায় জাপান ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশন এজেন্সি (জাইকা)’র অর্থায়নে এবং এলজিইডি শেরপুরের বাস্তবায়নে বৃহৎ পরিসরে নির্মিত হচ্ছে পানির হাউজ।

সে হাউজ থেকে ৪শত কি: মি: মোটা পাইপ লাইন দিয়ে পানি সরবরাহ করে নিয়ে যাওয়া হবে নালিতাবাড়ী উপজেলার বিভিন্ন অংশে। ফলে ব্যাপক ক্ষতির সন্মুখিন হবে ঝিনাইগাতী উপজেলার কৃষকগণ।

হলদী গ্রামের সেলিম, মানিককুড়া গ্রামের খালেক সাইফুল্লাহ, নলকুড়া গ্রামের আব্দুর রশিদ, রাংটিয়া গ্রামের বাবুল মিয়া, স্থানীয় কৃষক শাজাহান চৌধুরী, গনি মিয়া মনির মিয়া, কামরুজ্জামান, বাদলসহ আরও অনেকেই জানান, এ হাউজ নির্মাণ হলে, ঝিনাইগাতী সদর, গৌরীপুর, হাতীবান্দা ও মালিঝিকান্দা ইউনিয়নের উপর দিয়ে মহারশি নদীর পানি প্রবাহিত পানি দিয়ে বোরো মৌসুমে ফসল উৎপাদন করে থাকেন।

কিন্তু ঝিনাইগাতীর স্বার্থ বিবেচনা না করে নালিতাবাড়ীর জন্য পাইপ লাইন করা হলে এখানকার কৃষকদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

তারা বলেন, নালিতাবাড়ী উপজেলায় পানি দেওয়া হলে আমরা মহা সংকটে পড়বো বিধায় কোন ভাবেই তা মেনে নিতে পারিনা। উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী জানান, এ উপজেলাটি শতভাগ কৃষি ফসল উৎপাদনের উপর নির্ভরশীল।

কোন অবস্থাতেই নালিতাবাড়ীতে পানি সরবরাহ করতে হলদীগ্রামের জিরু পয়েন্টে বৃহৎ পরিসরে পানির হাউজ নির্মাণ ঠিক হচ্ছেনা।

উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ এসএমএ ওয়ারেজ নাইম জানান, রাবার ড্যামের অতিরিক্ত পানি দিয়ে ভাটি এলাকার ৪টি ইউনিয়নের প্রায় ৫ হাজার হেক্টর জমিতে চাষাবাদ হয়।

ঝিনাইগাতী উপজেলার চাহিদা না মিটিয়ে নালিতাবাড়ীতে পাইপ লাইন দেওয়া হলে কৃষকরা বড় ধরনের ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

উপজেলা প্রকৌশলী মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক জানান, এ বিষয়ে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিত ভাবে জানানো হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ( ইউএনও) মোহাম্মদ ফারুক আল মাসুদ এ বিষয়ে সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, “বিষয়টি আমি সরেজমিনে গিয়ে দেখেছি। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে লিখিত ভাবে জানানো হবে”।

ঝিনাইগাতী উপজেলার স্বার্থ বাদ দিয়ে নালিতাবাড়ীতে পানির পাইপ লাইন না দেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন ঝিনাইগাতী উপজেলার কৃষকগণ।

আরও পড়ুনঃ শ্রীনগরে মা ইলিশ ধরার অপরাধে আর্থিক জরিমানা