13.7 C
New York
Saturday, July 31, 2021

তিন প্রকার সাঁতারে চ্যাম্পিয়ন কেন্দুয়ার সৈয়দ আশরাফুল আলম খোকন

বিজ্ঞাপন

 

বিজ্ঞাপন

সমরেন্দ্র বিশ্বশর্মা(কেন্দুয়া) প্রতিনিধিঃ
আর্থিকভাবে দৈন্যদশা থাকলেও ক্রিকেট, ফুটবলসহ সব খেলাধুলায় কোন প্রকার দৈন্যতা নেই। অসম্ভব পারদর্শী হয়ে অন্য প্রকার খেলাধুলার পাশাপাশি তিন প্রকার সাতাঁরেও চ্যাম্পিয়ন হয়েছে কেন্দুয়া সৈয়দ আশরাফুল আলম খোকন। সে উপজেলার চিরাং ইউনিয়নের বাট্টা গ্রামের সৈয়দ ইদ্রিস আলীর ছেলে।
অবশ্য ইদ্রিস আলী উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ে চতুর্থ শ্রেণির একজন সৎ কর্মচারী হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। আশরাফুলের মা সৈয়দা রুনা আক্তার একজন গৃহিনী। ৪ ভাই ১ বোনের মধ্যে খোকন তৃতীয়। সে একজন মেধাবী ছাত্র। ঐতিহ্যবাহী কেন্দুয়া জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত। ছোট বেলা থেকেই বিভিন্ন খেলাধুলার প্রতি প্রচন্ড আগ্রহ ছিল তার।
পৌর শহরের চন্দ্রগাতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পঞ্চম শ্রেণিতে সাধারণ বৃত্তি এরপর জয়হরি স্প্রাই সরকারি উচচ বিদ্যালয়ে অষ্টম শ্রেণিতে জিপিএ-৫ পেয়েছে। প্রাথমিক বিদ্যালয়ে পড়ার সময় বঙ্গবন্ধু গোলকাপ টুর্নামেন্ট থেকে শুরু করে সকল প্রকার খেলাতে অংশ নিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় সে।
খোকন জানায়, জাতীয়ভাবে খেলাধুলা প্রতিযোগীতায় অংশ নিতে জেলা ভিত্তিক যাচাই-বাছাইয়ের পর ১১ জনের মধ্যে ১ জন ছিল খোকন। কিন্তু পারিবারিক আর্থিক অনটনের কারণে সে আর জাতীয় পর্যায়ে খেলায় অংশ নিতে পারেনি।
রোববার সৈয়দ আশরাফুল আলম তার বিভিন্ন চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সনদ পত্রগুলো দেখিয়ে বলে ২০১৪, ২০১৫, ২০১৬ ও ২০১৭ সালে আন্ত:বিদ্যালয় প্রতিযোগীতায় অংশ নিয়ে তিন প্রকার সাতাঁরেও চ্যাম্পিয়ন হয়। বুক, চিৎ ও প্রজাপতি সাতাঁরে খুবই পারর্দশী। তার ইচ্ছা একজন বড় মাপের সাতারু হবার। এজন্য পৃষ্টপোষকতা চায় খেলাধুলা প্রিয় বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার।
এছাড়া খোকন ভাল ডুবারোও বটে। একটি পুকুরে যেকোন সাধারণ মানুষ তিন বার কিংবা চারবার ডুব দিয়ে পুকুরটি এপার থেকে ওপারে পাড় হতে হবে, সে ক্ষেত্রে খোকন এক ডুবে পার হতে পারে বলে তার দাবী, এজন্য খোকন সাতাঁরসহ সকল প্রকার খেলাধুলার মাধ্যমে এলাকার কথা তথা দেশের সম্মান কুড়িঁয়ে আনতে সমাজের সকলের দোয়া কামনা করে।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here

বিজ্ঞাপন

সর্বশেষ সংবাদ

x