দেওয়ানগঞ্জের সানন্দবাড়ীতে অবৈধ ভাবে বালু তোলা কি বন্ধ হবেনা?

জামালপুর জেলার দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার চর আমখাওয়া ইউনিয়নের সানন্দবাড়ী জিঞ্জিরাম সেতুর পূর্ব পাশে লম্বাপাড়া বালুচর নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনের অভিযোগে অবৈধ ড্রেজার মেশিন ও পাইপ ভাংচুর করেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

১৭ আগষ্ট সোমবার সানন্দবাড়ী জিঞ্জিরাম নদীতে সেতুর ২০০ গজের মধ্যে একটি সংঘবদ্ধ চক্র ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধ ভাবে বালু উত্তোলন করে আসছিল দীর্ঘদিন যাবৎ। এতে সানন্দবাড়ী সেতুটি মারাত্মক হুমকির মুখে পড়েছে। সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুলতানা রাজিয়ার নির্দেশে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান অভিযান চালিয়ে একটি ড্রেজার মেশিন ও মেশিনের ২০০ টি পাইপসহ অন্যান্য সরঞ্জামাদি ধ্বংস করে দেয়। এই বার সহ প্রায় আট দশবার উপজেলার বিভিন্ন এলাকা সহ সানন্দবাড়ী এলাকায় অভিযান চালিয়ে দশ বারোটি ড্রেজার ধ্বংস করলেও থেমে থাকেনি এই চক্রটি। অভিযান সমাপ্ত করার কয়েক ঘন্টার মাঝেই আবার নতুন করে বালু তোলা শুরু করে। এদের মদদ দাতাদের খুঁজে বের করে আইনের আওতায় আনা এখন সময়ের দাবি।

সোমবারের অভিযানে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এর সাথে অংশগ্রহণ করেন, উপজেলা একাডেমিক সুপারভাইজার সজল চন্দ্র ভদ্র, সার্ভেয়ার আব্দুর রাজ্জাক, চরআমখাওয়া ইউনিয়ন ভূমি উপসহকারী কর্মকর্তা মোঃ জয়নুল আবেদীন। সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আসাদুজ্জামান বলেন, নদীতে অবৈধভাবে যারা বালু উত্তোলন করবে তাদের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যহত থাকবে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ড্রেজার শ্রমিকগণ জানান করোনা ও চলতি বন্যার কারনে আমরা আর্থিক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছি, সরকার আমাদের বিকল্প কোন কাজের ব্যবস্থা করলে আমরা এ পেশা ছেড়ে দিবো। সাধারণ মানুষের প্রশ্ন বার বার মেশিন পত্র ধ্বংস করার পরও কার খুঁটির জোরে আবার চালু হয় ড্রেজার।

আপনার মতামত লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here