ধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল এমসি কলেজ

ধর্ষণের প্রতিবাদে উত্তাল এমসি কলেজ

সিলেট জেলা প্রতিনিধিঃ
ছাত্রাবাসে স্বামীকে বেঁধে রেখে তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় উত্তাল হয়ে উঠেছে সিলেটের এমসি কলেজ। ন্যাক্কারজনক এ ঘটনার প্রতিবাদ ও অভিযুক্তদের বিচার দাবিতে বিক্ষোভ করেছেন ছাত্রলীগ ও সাধারণ শিক্ষার্থীরা। ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুর ১২টার দিকে কলেজের সামনে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে সিলেট-তামাবিল মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন তারা।

এসময় তারা তারা ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’, ‘শেখ হাসিনার বাংলায় ধর্ষকের স্থান নেই,’ ‘ঘাতক-ধর্ষকের ফাঁসি চাই’ স্লোগান দেন।

দুপুর ২টা পর্যন্ত তারা সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। এতে নেতৃত্ব দেন এমসি কলেজ ছাত্রলীগের নেতা দেলওয়ার হোসেন, হোসাইন আহমদ, রাসেল আহমদ, শামীম আলী ও আলতাফ হোসেন মোরাদ।



শিক্ষার্থীরা অভিযোগ করে বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে কলেজ বন্ধ থাকার পরেও কর্তৃপক্ষ কীভাবে ছাত্রাবাস খোলা রাখেন। কর্তৃপক্ষের অবগত থাকার পরেও কেন ছাত্রাবাস বন্ধ করে দেয়া হলো না। যে কারণে ঐতিহ্যবাহী বিদ্যাপীঠে কলঙ্কের দাগ লেগেছে বলে মনে করেন শিক্ষার্থীরা।

এসময় শিক্ষার্থীরা গণধর্ষণের ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচার দাবি করেন। অন্যথায় তারা আরও কঠোর কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে হুশিয়ারি দেন।

এদিকে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে এমসি কলেজ ও ছাত্রাবাসে বিপুল সংখ্যাক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গতকাল শুক্রবার সিলেটের এমসি কলেজে স্বামীর সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন এক গৃহবধূ। এ ঘটনায় ভিকটিমের স্বামী বাদী হয়ে শাহপরান থানায় একটি মামলা করেন।

মামলায় ছাত্রলীগের ৬ নেতাকর্মী ও অজ্ঞাত আরও ৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

এদিকে শাহপরান থানার এসআই মিল্টন সরকার বাদী হয়ে অস্ত্র আইনে একটি মামলা করেন।

এর আগে ভোররাতে ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর রহমানের কক্ষে অভিযান চালিয়ে একটি পাইপগানসহ বিভিন্ন দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে পুলিশ।

আরো পড়ুন>> পূর্বধলায় হাতকড়াসহ পালিয়ে যাওয়া হত্যা মামলার আসামী গ্রেপ্তার

আপনার মতামত লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here