13.7 C
New York
Sunday, August 1, 2021

ধর্ষণ মামলা তোলে নিতে ধর্ষিতাকে মারপিট

মদন(নেত্রকোনা)প্রতিনিধিঃ

বিজ্ঞাপন

নেত্রকোনার মদনে ধর্ষণ মামলা তুলে নেওয়ায় জন্য প্রতিবন্ধি এক শিক্ষার্থী(১৮) কে মারপিট করে ব্রীজের নিচে পেলে রেখেছেন ধর্ষক ও তার পরিবারের লোকজন। বৃহস্পাতিবার সকালে তিয়শ্রী-সিংহের বাজার সড়কের মাখনা গ্রামের সামনে ব্রীজের নিচ থেকে অজ্ঞান অবস্থায় এলাকাবাসী ওই শিক্ষার্থীকে উদ্ধার করে মদন হাসপাতালে ভর্তি করছেন। বুধবার রাতে উপজেলার নায়েকপুর ইউনিয়নে মাখনা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। প্রতিবন্ধি শিক্ষার্থী উপজেলার তিয়শ্রী ইউনিয়নের বাড়ৈউড়া গ্রামের চান মিয়ার কলেজ পড়ুয়া মেয়ে।

বিজ্ঞাপন

আহত প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী জানান, ২০২০ সালের ১৬ আগষ্ট মাঘনা গ্রামের প্রভাবশালী করিম মিয়ার ছেলে অপু আমাকে প্রেমের প্রলোভন দিয়ে জোড়পূবক একাধিকবার ধর্ষণ করেন। পরে ২০২০ সালের ১৯ আগষ্ট তার বিরুদ্ধে একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করি। এ থেকেই ধর্ষণ মামলাটি তোলে নেয়ার জন্য আমাকে বিভিন্ন সময় চাপ সৃষ্টি করে। ২০২১ সালের ১ এপ্রিল জামিন পেয়ে অপু বাড়িতে আসে। এর পর থেকে আমাকে বিয়ে করবে বলে প্রলোভন দিয়ে বিভিন্ন স্থানে ঘুরতে নিয়ে যায়। গতকাল ( ৭ এপ্রিল) বুধবার বিয়ের কথা বলে আমোকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। সেখানে নিয়ে অপু ও তার বাবা আব্দুল করিম, আরো কয়েক জন মামলাটি তোলে আনার জন্য আমাকে মারপিট করে। আমি অচেতন হয়ে পড়লে তাদের বাড়ির সামনে ব্রিজের নিচে ফেলে যায়। আমার একটি চোখ নষ্ট আরো একটি চোখ তারা নষ্ট করে ফেলেছে। আমি এর সুষ্টু বিচার চাই।

এ ব্যাপারে মোবাইল ফোনে অপু জানান, গতকাল রাতে একটি সিএনজি নিয়ে গভীর রাতে ওই মেয়েটি আমার বাড়িতে এসেছিল। পরে আমার বাবা চুর মনে করে কয়েকটি থাপ্পর দিয়ে বিদায় করে দিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

নায়েকপুর ইউপি চেয়ারম্যান আতিকুর রহমান রোমান জানান, খবর পেয়ে আমি নিজে ঘটনাস্থলে গিয়ে মেয়েটিকে মদন হাসপাতালে প্রেরণ করেছি।

মদন হাসপাতালের জরুরী বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাক্তার কাজী বুশরা আমীন জানান, মেয়েটির শরীরে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

মদন থানার ওসি ফেরদৌস আলম জানান, প্রতিবন্ধী কলেজ শিক্ষার্থী অপুর বিরুদ্ধে ২০২০ সালে ১৯ আগষ্ট মদন থানায় যে মামলাটি করেছিলো সেই মামলাটি বিচারাধীন আছে। মারপিটের বিয়ষটি তদন্ত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন:স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে টাকা কম দেয়ায় চিকিৎসকের থাপ্পরে অজ্ঞান শিশু রোগী!

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here

বিজ্ঞাপন

সর্বশেষ সংবাদ

x