13.7 C
New York
শনিবার, সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১

পাবনায় অবৈধ যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির কারখানা সিলগালা করে দিল জেলা প্রশাসন ও পুলিশ

বিজ্ঞাপন

পাবনায় অবৈধ যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরির কারখানায় অভিযান চালিয়ে ৫ লাখ টাকা জরিমানা ও কারখানাটি সিলগালা করে দিয়েছে গোয়েন্দা পুলিশ ও জেলা প্রশাসন।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত এই অভিযান পরিচালিত হয়। এ সময় ‘আফুরিয়া ফাষ্ট ফুড’ কারখানা থেকে বিপুল পরিমাণ অবৈধ এসএস পাউডার, তাদের উৎপাদিত সিরাপসহ বিভিন্ন ক্যামিকেল পাওয়া যায়।

অভিযানে নেতৃত্বদানকারী পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) মাসুদ আলম সমকালকে জানান, আফুরিয়ায় ‘ফাষ্ট ফুড’ ফ্যাক্টরিতে দীর্ঘদিন ধরে হট ফিলিংসসহ কয়েকটি আইটেমে সেক্সুয়াল সিরাপ তৈরি করা হচ্ছে, যা দেশের বিভিন্ন জেলা ও উপজেলার মুদি দোকানে বিক্রি হয়। ফ্যাক্টরির স্বত্বাধিকারী আরিফুল ইসলাম আরিফ ও আব্দুর রাজ্জাক আইন প্রয়োগকারী সংস্থাকে ম্যানেজ করে মানুষের জন্য ক্ষতিকারক ড্রাগ তৈরি করেছেন। ফ্যাক্টরির মালিক পাবনার প্রভাবশালী ব্যক্তিদের ছত্রছায়ায় থাকার কারণে এ বিষয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না। বিষয়টি আমাদের নজরে এলে ওষুধ প্রশাসন ও জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কে এম মাহমুদ হাসানের সমন্বয়ে একটি টিম অভিযান চালায়। অভিযানে বিপুল পরিমান নিষিদ্ধ এসএস পাউডারসহ বিভিন্ন উৎপাদিত পণ্য পাওয়া যায়। তবে কারখানার মালিক রাজ্জাক হাজী ও আরিফ অভিযানের আগেই পালিয়ে যান। অভিযান শেষে মালিকের ৫ লাখ টাকা জরিমানা ও কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।

বিজ্ঞাপন

একই সঙ্গে তাদের উৎপাদিত পণ্য ঢাকার একটি রাষ্ট্রীয় ল্যাবে পরীক্ষা নিরীক্ষার পাঠানো হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, টেস্টে বিএসটিআইয়ের অনুমোদিত পণ্যের সঙ্গে মিল পাওয়া না গেলে আরেকটি মামলা করা হবে কারাখানার মালিকদের বিরুদ্ধে।

পাবনার বিশিষ্ট চিকিৎসক ডা. রাম দুলাল ভৌমিক বলেন, এ ধরনের মানহীন সিরাপ সেবনে তাৎক্ষণিক যৌন উত্তেজনা দেখা দিলেও দীর্ঘমেয়াদী পার্শ্ব প্রতিক্রীয়ার সৃষ্টি হয়। বিশেষ করে লিভার, কিডনি ড্যামেজের পাশাপাশি হৃদযন্ত্রের ক্রীয়া বন্ধ হয়ে মারা যেতে পারে সেবনকারী। ড্রাগের চেয়েও ক্ষতিকর এই সিরাপ। এই পণ্যটির ভোক্তা ট্রাকচালক, রিকশাচালক থেকে শুরু করে বেকার যুবক ও শিক্ষার্থীরা। এ ব্যাপারে সরকারের কঠোর নজরদারী প্রয়োজন।

বিজ্ঞাপন
রিপোর্টারঃ পাবনা প্রতিবেদক
বিজ্ঞাপন

সর্বশেষ সংবাদ

বিজ্ঞাপন
x