1. durjoybangla24@gmail.com : durjoy bangla : durjoy bangla
  2. afzalhossain.bokshi13@gmail.com : Afjal Sharif : Afjal Sharif
  3. aponsordar122@gmail.com : Apon Sordar : Apon Sordar
  4. awal.thakurgaon2020@gmail.com : abdul awal : abdul awal
  5. sheblikhan56@gmail.com : Shebli Shadik Khan : Shebli Shadik Khan
  6. jahangirfa@yahoo.om : Jahangir Alam : Jahangir Alam
  7. mitudailybijoy2017@gmail.com : শারমীন সুলতানা মিতু : শারমীন সুলতানা মিতু
  8. nasimsarder84@gmail.com : Nasim Ahmed Riyad : Nasim Ahmed Riyad
  9. netfa1999@gmail.com : faruk ahemed : faruk ahemed
  10. mdsayedhossain5@gmail.com : Md Sayed Hossain : Md Sayed Hossain
  11. absrone702@gmail.com : abs rone : abs rone
  12. sumonpatwary2050@gmail.com : saiful : Saiful Islan
  13. animashd20@gmail.com : Animas Das : Animas Das
  14. Shorifsalehinbd24@gmail.com : Shorif salehin : Shorif salehin
  15. sbskendua@gmail.com : Samorendra Bishow Sorma : Samorendra Bishow Sorma
  16. swapan.das656@gmail.com : Swapan Des : Swapan Des
পুলিশ পরিদর্শকরা এএসপি পদে পদোন্নতি না পেয়ে মাঠ পর্যায়ে হতাশ - durjoy bangla | দুর্জয় বাংলা
শনিবার, ১৫ অগাস্ট ২০২০, ১১:৫১ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
ময়মনসিংহ বিভাগীয় কমিশনারসহ ১৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের শাহাদত বার্ষিকীতে সিএমপির আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল ময়মনসিংহে নানা আয়োজনে জাতির জনকের শাহাদাত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস পালন ইসলামপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় বঙ্গবন্ধুর জাতীয় শোক দিবস উদযাপন। জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে লৌহজংয়ে দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত ২৬৪৪,মৃত্যু৩৪ কেন্দুয়ায় নানা আয়োজনে বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী পালন ময়মনসিংহে শোক দিবসে বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের শ্রদ্ধা দোয়া মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত খিদিরপাড়ায় নানা আয়োজনে শোক দিবস পালিত শোক দিবসে ধানমন্ডি-৩২ এ গণপূর্তের প্রধান প্রকৌশলীর শ্রদ্ধা নিবেদন




পুলিশ পরিদর্শকরা এএসপি পদে পদোন্নতি না পেয়ে মাঠ পর্যায়ে হতাশ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ
  • বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০, ৩:৩৪ অপরাহ্ণ
  • ৬৩৯৭ বার পঠিত
পুলিশ পরিদর্শকরা এএসপি পদে পদোন্নতি না পেয়ে মাঠ পর্যায়ে হতাশ

পুলিশ পরিদর্শক থেকে পদোন্নতি পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার (এএসপি) হওয়ার বিষয়টি মন্ত্রণালয় আর সরকারী কর্মকমিশন সচিবালয়ে (পিএসসি) চিঠি চালাচালির মধ্যে আটকে রয়েছে। এতে অনেক পরিদর্শকের মধ্যে হতাশা ও চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে। সারাদেশে সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার পাঁচ শতাধিক পদ শূন্য রয়েছে। পদোন্নতি না হওয়ায় অনেকেরই পরিদর্শক থেকে পদোন্নতি পেয়ে সহকারী পুলিশ সুপার হওয়ার স্বপ্ন বাস্তবে রূপ নিচ্ছে না। ফলে বিভিন্ন থানায় সততা,দক্ষ,পরিশ্রমী,মেধাবী,কৌঁশলি ও বিচক্ষণতার মধ্য দিয়ে দায়িত্ব পালন করা ইন্সপেক্টর পদমর্যাদার ওসি, ইন্সপেক্টরসহ (তদন্ত) পুলিশের বিভিন্ন সংস্থায় দায়িত্বরত ইন্সপেক্টরদের দৈনন্দিন কাজেও এর ছাপ পড়ছে। বিশেষ করে এ পদোন্নতি না পাওয়ার আশ^াসে অনেকের পরিবারেও দেখা গেছে হতাশার চাপ।
১৯৯০ সালে নিয়োগপ্রাপ্ত এসআই গন মাত্র ১ টা প্রমোশন পেয়েছে অথচ একি সময়ে নিয়োগপ্রাপ্ত এএসপি গন ৫টা প্রমোশন পেয়েছে। অথচ তারা একই শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে একই সময়ে চাকরিতে ভর্তি হয়েছে। অধিকাংশ পরিদর্শক যাদের মধ্যে অনেকেরই চাকরির মেয়াদ শেষ পর্যায়ে। ইতোমধ্যেই অনেকেই কস্টকে বুকে ধারণ করে অবসরে চলে গেছেন। নিয়মানুযায়ী অনেকেই যাচ্ছেন। কারো কারো মৃত্যুও হয়েছে।

বাংলাদেশ পুলিশের তিন হাজারের বেশি পুলিশ পরিদর্শক পদের বিপরীতে প্রমোশন যোগ্য এসপি পদের সংখ্যা মাত্র ৪৪১টি। এই এএসপি পদের মোট ১৩২২ টি পদের বিপরীতে ৮৮১ পদকে পূর্ণ করা হয় সরাসরি বিসিএস ক্যাডার থেকে এবং ৪৪১ বিভাগীয় পদোন্নতির মাধ্যমে। এই ৪৪১ টি পদের ৭২ দশমিক ১০ শতাংশ পদ পূরণ করা হয় নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক হতে ১৪.২৫ পার্সেন্ট পূরণ করা হয় শহর ও যানবাহন পুলিশ পরিদর্শক হতে এবং ১৩ দশমিক ৬ শতাংশ সশস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক হতে। কিন্তু বিগত কয়েক বছরে পুলিশের সশস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক হতে এএসপি পদে পদোন্নতি যোগ্য কোনো প্রার্থী না পাওয়ায় এই কোটায় ১৮ টি পদ শূন্য রয়েছে। যা নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শকদের হাজার হাজার যোগ্যপ্রার্থীর মধ্য হতে পূরণ করা যেত। কিন্তু কোনো বাস্তব ভিত্তিক আন্তরিক পদক্ষেপের অভাবে সেটা এখানো আলোর মুখ দেখছে না। যা চাকরি ক্ষেত্রে শুধু বৈষম্য নয় মানসিক অশান্তি এবং চরম হতাশা থেকে দুর্নীতির দিকে ঠেলে দিচ্ছে। বাংলাদেশের এমন কোন সংস্থা সম্ভবত আর দ্বিতীয়টি নেই যেখানে ত্রিশ বছরে মাত্র একটি প্রমোশন পেয়ে চাকরি চালিয়ে যাচ্ছে। এই সমস্ত হতাশাগ্রস্থ হতোদ্যম পুলিশ সদস্যগণ যদিও তাদের বর্তমান যে স্কেলে বেতন পাচ্ছে সেটা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার।

এদেরকে প্রমোশন দিলে সরকারের অতিরিক্ত কোন ব্যয়ের সম্ভাবনা নেই বরং তাদের অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে বর্তমান সরকারের মানবিক পুলিশ গঠনে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারত। সরকার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার থেকে পুলিশ সুপার পদমর্যাদার পথকে সুপারনিউমারি মাধ্যমে প্রদান করছেন, যার ফলে এখন এএসপিদের তুলনায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবং পুলিশ সুপারদের তুলনামূলক পদ সংখ্যা অনেক বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে যেটা অনেকটা মাথাভারী প্রশাসনের আকার ধারণ করেছে, পুলিশ বাহিনীর এই অসামঞ্জস্যতা সমাধানকল্পে অতিদ্রুত এএসপি পদসংখ্যা বৃদ্ধি এবং পুলিশ পরিদর্শক হতে এএসপি পদে পদোন্নতি সংখ্যা প্রয়োজনে সুপারনিউমারি না করলে বাহিনীর মধ্যে চরম অসন্তোষ এবং নানাবিধ হতাশার আশঙ্কা বিদ্যমান। দেশের প্রতিটা থানায় সহকারি পুলিশ সুপার এর পদ সৃষ্টি করত অথবা উপজেলা পুলিশ অফিসার পদ সৃষ্টির মাধ্যমে ও এই পদোন্নতি সমস্যার সমাধান করা যেতে পারে।

পদোন্নতি আটকে থাকাদের দাবি, নিয়ম অনুযায়ী ১০ থেকে ১২ বছর ধরে ইন্সপেক্টর পদে দায়িত্ব পালন করেছেন। কর্মক্ষেত্রে সাহসিকতাপূর্ণ অবদানের জন্য তাদের অনেকেই রাষ্ট্রপতি পুলিশ পদক (পিপিএম) ও বাংলাদেশ পুলিশ পদকসহ (বিপিএম) বিভিন্ন ধরনের পদক পেয়েছেন। ৫০% ডিপার্টমেন্টাল প্রমোশন দেয়ার দাবীও জানান তারা।
সংশ্লিস্ট সূত্র বলছে, কোটা অনুযায়ী এক-তৃতীয়াংশ এএসপি পদ পাওয়ার কথা নিরস্ত্র পরিদর্শকদের। প্রতি বছরই বিসিএস থেকে এএসপি পদে নিয়োগও নেওয়া হচ্ছে। কিন্তু পদোন্নতি হচ্ছে না শুধু চাকরিরত ইন্সপেক্টরদের। নব্বইয়ের দশকে বিসিএস থেকে চাকরি নিয়ে অনেকে ছয় ধাপ পদোন্নতি পেয়েছেন। ৯৪ সালে কনস্টেবল থেকে পরিদর্শক হয়ে তিন দফা পদোন্নতি পেয়েছেন। মাত্র ১০ থেকে ১২ বছর আগে বিসিএস ক্যাডারে যোগদান করে তিন দফা পদোন্নতিরও নজির রয়েছে।

পদোন্নতি আটকে থাকা ইন্সপেক্টররা একধাপ প্রমোশন পেয়ে ইন্সপেক্টর হয়েও বুকে শত দুঃখ বেদনা, বঞ্চনা দামাচাপা দিয়ে ইন্সক্টের পদে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। পদোন্নতি বিষয়ে পুলিশের সংশ্লিষ্টদের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নজরদারী কামনা করছেন সারাদেশের ভুক্তভোগী ইন্সপেক্টর।

আরো পড়ুন>>> ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় বন্যায় প্লাবিত এলাকা পরিদর্শন করলেন ডিসি মিজানুর রহমান

আপনার মতামত লিখুনঃ
নিউজটি সেয়ার করার জন্য অনুরোধ রইল!
এই জাতীয় আরো সংবাদ
durjoybangla.conlm_৮ বছরে







©২০১৩-২০২০ সর্বস্তত্ব সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা

কারিগরি সহযোগিতায় দুর্জয় বাংলা