মাদকসহ উলিপুর সমাজসেবা কর্মকর্তা মশিউরকে রংপুর থেকে আটক করেছে র‍্যাব-১৩

নিজস্ব প্রতিবেদক :

0
1

রংপুর র‍্যাব-১৩ এর অভিযানে মাদকসহ কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মশিউর রহমান ও তার সহযোগী রাসেল মিয়া আটক। আটক রাসেল মিয়া উলিপুর খেওয়ার পাড় এলাকার আনোয়ারুল ইসলাম মনার পুত্র।

র‍্যাব জানায়, শুক্রবার বিকেলে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে রংপুর শহরের শাপলা চত্বর থেকে ১২ বোতল বিদেশী মদসহ মশিউর রহমান মিল্টন ও তার সহযোগী রাসেল মিয়াকে আটক করা হয়। পরে তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দিয়ে রংপুর কোতয়ালী থানায় হস্তান্তর করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রংপুর কোতয়ালী থানার এস আই তপন কুমার জানান, বাইরের ( বিদেশী) মদ সহ র‍্যাবের হাতে আটক হয়েছেন। পুলিশ সুত্রে জানা যায়, মামলা প্রক্রিয়ার সময় আসামীর পক্ষ হতে প্রভাব বিস্তারের অপতৎপরতা ছিলো। অনৈতিক লেনদেন ও দাপ্তরিক কাজে ঘুষের লেনদেন ছিলো নির্বিঘ্নে, উলিপুর উপজেলা প্রশাসনে কয়েকজন কর্মকর্তা মিলে একটি সংঘবদ্ধ গ্রুপ তৈরি হয়েছিলো যেখানে স্থানীয় রাজনৈতিক নেতারাও ছিলেন। প্রতিদিন রাতে বসতো আড্ডা ও আসর। অন্যতম ছিলেন ধৃত এই কর্মকর্তা। ইতিমধ্যে একজন কর্মকর্তা দূর্নীতি অনিয়মের কারনে সাসপেন্ড হয়েছেন। বাকি সদস্যদের বিষয়ে নিশ্চিত হতে রিমান্ডের আবেদন করার বিষয়টি নিয়ে পুলিশি তৎপরতা দেখতে চায় সচেতন মহল। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জানান, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তাগণ মামলার খোঁজখবর রাখছেন এবং রিমান্ড আবেদন করার নির্দেশনা আসতে পারে।

সমাজসেবা কর্মকর্তা মশিউর রহমানের কর্মস্থল উলিপুরে, গুন্জন উঠেছে, ঐ কর্মকর্তা সহ প্রশাসনের আরো কয়েকজন মাদক ইয়াবা ও ভারতীয় ফেনসিডিলে আসক্ত থাকার জনশ্রুতি আছে। মদ সেবনের বিষয়টি অস্পষ্ট।।

শনিবার(২৩ অক্টোবর) রংপুর কোতয়ালী থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুর রশীদ জানান, আটক দুই আসামীকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।