ময়মনসিংহ জেলা পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে মতবিনিময় সভা

শিবলী সাদিক খান ময়মনসিংহ ব্যুরো ।। ময়মনসিংহ জেলার সকল থানার পুলিশ কর্মকর্তা,জেলা ট্রাফিক পরিদর্শক,হাট ইজারাদার,মটর কর্মচারী ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দসহ অন্যান্য সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আসন্ন ঈদ-উল-আযহা উপল্লক্ষে মতবিনিময় করেন , জেলা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম।এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশসুপার নুরে আলম, এস,এ নিয়াজি,জয়িতা শিল্পী,শাহরিয়ার মোহাম্মদ নিয়াজী,আল-আমীন প্রমুখ কর্মকর্তা বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় নিম্নউক্ত সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয় । ১) কোথায় কোথায় কত গুলো গরুর হাট বসবে।
২) ইজারাদার কত জন এবং তাদের বাজার পলিসি।
৩) অবৈধভাবে গরু মোটাতাজা করন নিষিদ্ধ এই সংক্রান্তে পুলিশ ও ইজারাদারদের নজরদারী।
৪) সকল গরুর হাটে নিরাপত্তা।
৫) কোরবানির পশু বোঝাই ট্রাকের নিরাপত্তা।
৬) আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে যাতে কোনো প্রকার চাঁদাবাজি/ছিনতাই না হয় সেটি নিশ্চিত করা।
৭) বন্যা দূর্গতদের নামে কেউ যাতে কোনো প্রকার চাদাবাজি করতে না পারে সে বেপারে দৃষ্টি আকর্ষন।
৮) পাটগুদাম/কেওয়াটখালী/চায়নামোরসহ শহরের গুরুত্বপূর্ণ মোড় গুলোতে পুলিশের নজরদারী ও টহল বৃদ্ধি।
৯) অবৈধ/রেজষ্ট্রেশনবিহীন যানবাহন চলাচল নিষিদ্ধ করা।
১০) কমিউনিটি পুলিশের সদস্য ও স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ।
১১) মলম পার্টী/অজ্ঞান পার্টির কবল থেকে সাধারন মানুষ ও যাত্রীদের সচেতন করা।
১২) কোরবানীর পশু বিক্রয় করে ফেরার পথে যাতে কোনো ছিনতাই না হয় সেটি নিশ্চিত করা।
১৩) হাট-বাজার সহ অন্যান্য এলাকার যানচলাচল নিশ্চিত করা।
১৪) গরুর হাট ও অন্যান্য মার্কেটে ছিনতাই চাদাবাজি দমন।
১৫) আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে সাধারন মানুষের চলাচল ও নিরাপদ ভাবে বাড়ি ফেরা নিশ্চিত করতে অতিরিক্ত ট্রাফিক ব্যবস্থা করা।
১৬) আসন্ন পবিত্র ঈদ-উল-আযহা উপলক্ষে পুরো-পোশাকে ও সাদা পোশাকে ডিউটি মোতায়েন।
১৭) ওয়াচ টাওয়ার ও পুলিশ কন্ট্রোলরুম স্থাপন।
১৮) বিভিন্ন ট্রাফিক মোড়ে যানজট নিরসন ও জনগনের সচেতন করার লক্ষে মাইকিং।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here