শিক্ষকতা আমার কাছে মহান পেশা- সাগর দত্ত

শিক্ষকতা আমার কাছে মহান পেশা- সাগর দত্ত
সাগর দত্ত

দুর্জয় বাংলা ডেস্কঃ
১৫তম শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষায় (সহকারি শিক্ষক ইংরেজি পদে) ১ম হয়েছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের চতুর্থ ব্যাচের শিক্ষার্থী সাগর দত্ত। তার রোল (৩০২০০৫৮৬৪)। তার স্বপ্ন পূরণের কথা তিনি বলেছেন দুর্জয় বাংলা কে।

শিক্ষকতা আমার কাছে মহান পেশা- সাগর দত্ত
সাগর দত্ত

আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতার শুরুর দিকটা কেমন ছিল?
বাবা (মাধব দত্ত) ও মা (শেফালী দত্ত) এর প্রথম সন্তান আমি। নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার নওপাড়া ইউনিয়নের দনাচপুর গ্রামে আমার জন্ম। নওপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় হতে আমি এসএসসি (২০০৭) পাস করি এবং কেন্দুয়া সরকারি কলেজ থেকে এইচএসসি (২০০৯) পাস করি। এরপর ময়মনসিংহের ত্রিশালে অবস্থিত জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফার্স্ট ক্লাস পেয়ে অনার্স এবং মাস্টার্স সম্পন্ন করি।

ইংরেজি ভাষা ও সাহিত্য পড়ার ক্ষেত্রে আপনার উৎসাহ কেমন ছিল?
বাবার জন্য মূলত ইংরেজি পড়তে বাধ্য হয়েছিলাম। বড় অভিনেতা হওয়ার ইচ্ছা ছিল আমার। ছোটবেলায় যাত্রাপালা অভিনয় ও করেছি। জাহাঙ্গীরনগরে ড্রামা অন্ড ড্রামাটিকস ডিপার্টমেন্টে চান্স পেয়েও পড়তে পারেনি। বাবার উপর ভীষণ রাগ করেছিলাম, আমাকে জাহাঙ্গীরনগরে নাটক ও নাট্যতত্ত্বে ভর্তি করাননি বলে।




বর্তমানে আপনি কি করছেন?
বর্তমানে শিক্ষকতা করছি ঢাকার কেরানীগঞ্জের নয়াবাজার উচ্চ বিদ্যালয়ে। পাশাপাশি মঞ্চে অভিনয় করি যেহেতু চাকরি করি অভিনয়ে নিয়মিত হতে পারছিনা।

শিক্ষকতা পেশা টাকে আপনি কিভাবে দেখছেন?
ছোটবেলায় যখন টেস্ট পেপার পড়তাম, ভালোভালো স্কুলের নাম শুনতাম। তখন খুব ইচ্ছা হতো যদি ভিকারুননেসা বা হলিক্রস বা মতিঝিল আইডিয়ালের শিক্ষক হতে পারতাম। পড়াশোনা শেষ করার পর ভিকারুননেসা, মতিঝিল আইডিয়ালে রিটেনে ভালো করে ভাইবাও দিয়েছি কয়েকবার। কিন্তু তা হয়ে ওঠেনি। জব করতে থাকি গাজীপুরের একটা প্রাইভেট কলেজে। এদেশে সবাই ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়ার, পাইলট হতে চায়। বিসিএস ক্যাডার হতে চায় দুঃখজনক হলেও সত্যি যে শিক্ষক হতে চায় খুব কম মানুষ। আমার কাছে এটাই মহান পেশা। হোক সে প্রাথমিক, মাধ্যমিক বা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক। একজন শিক্ষকই পারে সমাজ তথা রাষ্ট্রকে অন্ধকার থেকে মুক্তি দিতে।




বাংলাদেশের কোথায় শিক্ষকতা করতে চান এখন?
যেহেতু এই নিবন্ধনে ইংরেজি বিষয়ে আমি ১ম আর জাতীয় মেধায় ১৫তম, মেট্রোপলিটন এরিয়াতেই নিয়োগ পাব বলে মনে করছি।

নিবন্ধন পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের জন্য আপনার কি পরামর্শ?
প্রতিযোগিতামূলক নিবন্ধন পরীক্ষার জন্য নির্দেশনা হল প্রিলির জন্য বিসিএস ক্যাটাগরির প্রস্তুতি গ্রহণ, লিখিত পরীক্ষার জন্য বিষয়ভিত্তিক প্রস্তুতি গ্রহণ আর ভাইভার জন্য পঠিত বিষয় সহ সামগ্রিক বিষয় সমূহ মাথায় রাখা। লিখিত পরীক্ষায় যেন হাতে লেখা স্পষ্ট হয় সে বিষয়ে বিশেষ সতর্ক থাকা প্রয়োজন।

এই সাফল্যকে আপনি কিভাবে দেখছেন এবং পরবর্তী জীবনে কি করতে চান?
আমি এটাকে কোন বড় সাফল্য হিসেবে দেখছি না। তবে অনেক খুশি। কারণ যেকোনো পরীক্ষায় প্রথম হওয়া আনন্দের। ভবিষ্যতে ৪১ তম বিসিএস দেওয়ার ইচ্ছা রয়েছে। ৭১ এর মুক্তিযুদ্ধে আমার দাদু কে হত্যা করা হয়। আমার শহীদ পরিবার। আমার বাবা কৃষক। মুক্তিযুদ্ধের জন্য বাবা পড়তে পারিনি। তাই আমাকে দিয়ে তিনি তার স্বপ্ন পূরণ করতে চান। আমিও চাই তার স্বপ্ন পূরণ করতে।

আরো পড়ুন>>> করোনাকে জয় করলেন কেন্দুয়ার ইউএনও

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here