13.7 C
New York
মঙ্গলবার, সেপ্টেম্বর ২৮, ২০২১

শেরপুর ঝিনাইগাতীতে বড় বোনের প্রেমিক কে হত্যার দায় শিকার করেছে ভাই

বিজ্ঞাপন

মোহাম্মদ দুদু মল্লিক (শেরপুর)প্রতিনিধিঃ প্রেমে মানে না জাতকুল বংশ পরিচয় প্রেমে বয়ে আনে অনাবিল আনন্দ ও শান্তি আবার এ প্রেমেয় ঠেলে দেয় আত্বীয় স্বজনকে অনেক দুর ।

বিজ্ঞাপন

প্রথম যৌবনে প্রেমের নিকট সকল শক্তি পরাজিত হয়ে যায়। লাইলী মজনুর, সিনেমা কেও হাড় মানিয়ে এমনি হ্নদয় বিদারক ঘটনা ঘটেছে শেরপুর জেলার ঝিনাইগাতী উপজেলার নলকুড়া ইউনিয়নের গুমড়া গ্রামে ।

১০ মার্চ শুক্রবার গভীর রাতে বোনের সাথে প্রেম করার অপরাধে বোনের প্রেমিককে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে নিজ বোনকে ঘরে বেধে রেখে প্রেমিক কে মারপিট অবশেষে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে প্রেমিকার আপন ভাই ।

বিজ্ঞাপন

জানা যায় একই গ্রামের আসমত আলীর ছেলে কলেজ পড়–য়া অনার্স তৃতীয় বর্ষের ছাত্র প্রেমিক চাঁনমিয়া (২১)কে মুক্তার সাথে প্রেম করার অপরাধে প্রেমিকার ভাই আব্দুর রহমানের ছেলে রিয়াজল হক ওরুফে হ্নদয় মিয়া ধারালো ছুরির আঘাত করে খুন করেছে নিজ বাড়িতে চান মিয়াকে।

এ ব্যাপারে প্রেমিকের পিতা আসমত আলী জানায় রাতে আমার ছেলেকে একই গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে হ্নদয় মিয়া (১৬) ঘর থেকে ডেকে নিয়ে বাহির হয়ে যায় । বাড়িতে ফিরতে দেরি করলে আমি খুঁজতে গিয়ে তাদের বাড়ির আঙ্গিনায় আমার ছেলে কে রক্তাত্ব অবস্থায় পড়ে রয়েছে দেখে আমার চিৎকারে অন্য বাড়ির লোকজন আসে।এসে দেখে প্রেমিক চান মিয়ার অবস্থা খারাব। জুরুরী ভাবে ঝিনাইগাতী সদর হাসপাতালে নিয়ে আশা হলে। এলাকা বাসী আনলে কর্তব্যরত ডা: মৃত ঘোষনা করেন ।

বিজ্ঞাপন

ঝিনাইগাতী ওসি খবর পাওয়ার সাথে এস আই কামাল হুসেন ও এস আই মাসরুক সহ পুলিশ রাতেই হত্যা কারি হ্নদয় মিয়াকে আটক করে ঝিনাইগাতী থানায় নিয়ে আসে । এ ব্যাপারে ওসি বিপ্লব কুমার বিশ্বাস জানায় খবর পাওয়ার সাথে সাথে আমি ঐ হত্যাকারি কারি কে গ্রেফতার করতে পেরেছি। প্রেম সংঘঠিত কারণে চাঁন মিয়াকে খুন করা হয়েছে । লাশ ময়না তদন্ত শেষে তার পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে ।

প্রেমিক চান মিয়ার পিতা আসমত আলী বাদি হয়ে ঝিনাইগাতী থানায় আট জন কে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দ্বায়ের করেছেন । তিনি আরো বলেন তদন্ত করে খুনের সাথে কে কে জড়িত তা দেখা হবে এবং প্রেমিকা মুক্তার ভাই রিয়াজুল ওরুফে হ্নদয় মিয়া ১১ মার্চ বিজ্ঞ আদালতে ১৬৪ ধারায় জবান বন্ধি প্রদান করে হত্যার দায় শিকার করেছে বলে ওসি জানান ।

এলাকাবাসী জানায় আব্দুর রহমানের মেয়ে প্রেমিকা মুক্তা ঝিনাইগাতী মহিলা কলেজের ছাত্রী। চান মিয়ার সহিত দির্ঘদিন থেকে প্রেমের গভীর সম্পর্ক গড়ে উঠেছিল । এর জের ধরে মুক্তার ভাই হ্নদয় মিয়া ক্ষোভে তাকে হত্যা করেছে । প্রেমিকা মুক্তা প্রেমিক চান মিয়াকে কে হারিয়ে বার বার কান্যায় ভেঙ্গে পড়ছে তার লাশ ছুয়ে চুমু খেয়ে হাও মাও করে কাদছে।

প্রেমিক চান মিয়াকে ফিরে পাওয়ার জন্যে ঝিনাইগাতী হাসপাতালে ও থানায় হ্নদয় বিদারক দৃশ্যে পরিণত হয়ছিল নিজেও কেদেছে অন্যকেউ কাদিয়েছে। প্রেম ভালবাসার এমন পরিনতি তা বুঝাযায় মুক্তার ও চান মিয়ার প্রেমের কথা ভূলার মতো নয়।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সর্বশেষ সংবাদ

বিজ্ঞাপন
x