শ্রীনগরে আপন বোনের পরিবারকে উচ্ছেদের পায়তারা

মোঃ মুজাহিদ খাঁন, শ্রীনগর (মুন্সিগঞ্জ) প্রতিনিধি:

শ্রীনগরে আপন বোনের পরিবারকে উচ্ছেদের ষরযন্ত্রে ভাই ও ভাতিজীর বিরুদ্ধে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার আটপাড়া এলাকার বেলতলী গ্রামে অসহায় পরিবারটির ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। ভূক্তভোগী পরিবারটি শ্রীনগর থানায় আপন ছোট ভাই তার স্ত্রী ও ভাতিজীর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেলতলী গ্রামের মৃত আলাউদ্দিন শেখের ছেলে হামিদুল শেখ (৩২), তার স্ত্রী সোমা আক্তার (২৩) ও ভাতিজী ফারজানা ইমরোজ আন্নি (২৪) আছমা বেগমকে পরিবারসহ উচ্ছেদের হুমকি দিয়ে আসছে। এনিয়ে গত ২৫ তারিখে রোববার বিকালে হামিদুলের স্ত্রী সোমা ও ভাতিজী আন্নি আছমা বেগম ও তার বড় মেয়ে রোমানা জেরিন (২১) কে মারপিট করে আহত করে।

জানা যায়, এর আগে বিধবা আছমা বেগমকে তার বাবা বেলতলী মৌজায় লিজকৃত ৪০ শতাংশ জমির ৭ শতাংশ জমি মেয়ে আসমা বেগমের নামে হস্তান্তর করে যান। সেই সুবাধে বাবার দেয়া জায়গায় আছমা বেগম ঘর উঠিয়ে ২ কন্যা সন্তান নিয়ে বসবাস করছেন। অথচ তার ছোট ভাই হামিদুলের ষরযন্ত্রের স্বীকার বোনের পরিবারটি এখন মানবেত জীবনযাপন করছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছিুক একটি সূত্র জানায়, হামিদুল ও তার ভাতিজী আন্নি এলাকায় মাদকসেবী হিসেবে পরিচিত। আন্নির এর আগে দুইটি বিয়ে হলেও মাদকসেবনের কারণে তার সংসার ভাঙ্গে।



ভূক্তভোগী আছমা বেগম বলেন, বাবার লিজকৃত ৭ শতাংশ জমির মাত্র ৪ শতাংশ জমিতে ছোট্র একটি ঘর তুলে কলেজ পড়–য়া দুই মেয়েকে নিয়ে থাকছি। বেশ কিছুদিন যাবত হামিদুল আমাকে এখান থেকে উচ্ছেদের পায়তারা করছে। ওই দিন হামিদুরের কারসাজিতে তার স্ত্রী সোমা ও ভাতিজী আন্নি ঘরে এসে আমাদের ওপর হামলা করে। বড় মেয়েসহ আমি আহত হই। উপায় না পেয়ে থানায় অভিযোগ দায়ের করি।
অভিযুক্ত হামিদুলের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, হামলার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না। তার বিরুদ্ধে বোনকে উচ্ছেদের অভিযোগটি সত্য নয়। তিনি দাবী করেন, তার বোনের সাথে তার টাকা পয়সার লেনদেন আছে।

হামিদুলের স্ত্রী সোমা উল্টো অভিযোগ করে বলেন, আছমা বেগমই তাকে ও আন্নিকে মারধর করেছে। এ সময় তার কাছে থাকা ৩ লাখ টাকা ছিনিয়ের নেয় আছমা বেগম। এতোগুলো টাকার ছিনিয়ে নেয়ার ঘটনায় কোনও অভিযোগ দায়ের করেছেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, দেখি কিছু করতে পারি কিনা। এ বিষয়ে অভিযুক্ত ফারজানা ইমরোজ আন্নির সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করে তার সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি।
আটপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মো. আক্তার হোসেন জানান, হামলার ঘটনাটি তিনি লোক মুখে শুনেছেন। হামিদুলের স্ত্রী সোমা ও তার ভাতিজী আন্নি কাজটি অন্যায় করেছে।
এ ব্যাপরে অভিযোগের তদন্তকারী কর্মকর্তা ও শ্রীনগর থানার এসআই মো. খলিল জানান, অভিযোগ হাতে পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরো পড়ুন: দেওয়ানগঞ্জে ডব্লিউএফপি’র টাকা মেম্বারের পেটে!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here