শ্রীনগরে রাস্তার নির্ধারিত জায়গা না ছেড়ে ভবন নির্মাণ

মোঃ মুজাহিদ খাঁন, শ্রীনগর (মুন্সিগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ

শ্রীনগরে রাস্তার নির্ধারিত জায়গা না ছেড়ে ভবন নির্মাণ

শ্রীনগর উপজেলার ভাগ্যকুল-দোহার সড়ক সংলগ্ন আল-আমিন বাজারে একটি রাস্তার নির্ধারিত জায়গা না ছাড়া এবং নির্মিত ওই ভবনের ছাদ, কানিশ ও সানশেট বড় করার কারণে রাস্তায় যানবাহন চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। আল-আমিন এলাকার বাছের বেপারী ছেলে দেলোয়ার বেপারী এই ভবন নির্মাণ করছে। এতে করে ব্যস্ততম আল-আমিন বাজারের কাঁচা বাজার সংলগ্ন ওই রাস্তার ওপরে সানশেটটি ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, আল-আমিন বাজার থেকে আলেমুন নেছা স্কুল পর্যন্ত ইট সলিংয়ের রাস্তার পাশে বহুতল ভবন নির্মাণ করা হচ্ছে। রাস্তার সীমানা থেকে ভবনের কাজ করা হলেও দ্বিতীয় তলায় গিয়ে প্রায় ৪ ফুট সানশেট/ঝুলন্ত বারান্দা নির্মাণের কাজ করছে শ্রমিকরা। এতে করে সানশেটটি রাস্তার মাঝখানে এসে পরেছে। মালবাহী ট্রাক/কাভার্ডভ্যানসহ বিশেষ প্রয়োজনে বাসের মত উঁচু গাড়ী চলাচলে বাঁধাগ্রস্ত হচ্ছে। রাস্তার ওপরে ঝুঁকিপূর্ণ সানশেটের কারণে যেকোনও সময় বড় ধরণের দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারে। এলাকাবাসী জানায়, তারা ওই রাস্তায় প্রতিনিয়ত যাতায়াত করেন। রাস্তার ওপরে এভাবে ভবনের সানশেট নির্মাণের বিষয়ে বাজার কমিটিও চুপ। আমাদের কথায় কোনও লাভ হবেনা। সবাই তো দেখছেন।



এ সময় ঠিকাদার রিপনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, রাস্তার জায়গা ছেড়েই তো ভবন তোলা হয়েছে। দ্বিতীয় তলায় গিয়ে প্রায় ৪ ফুট ছাদ/সানশেটটি রাস্তার ওপরে যাওয়ার রহস্য জানতে চাইলে তিনি কোনও সুদত্তর দিতে পারেননি। আল-আমিন বাজার কমিটির সভাপতি মো. মানুনের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি দেখেছি সীমানা সই করে ভবন উঠানো হয়েছে। ভবন মালিক দেলোয়ার বেপারীর কাছে জানতে চাইলে তিনি দম্ভ করে বলেন, আমার জায়গায় আমি ভবন নির্মাণ করছি। রাস্তার ওই পাশেও আমার জায়গা রয়েছে। অতিরিক্ত সানশেটটি নির্মাণ করা তার রাইট আছে বলেন তিনি।



স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল সামাদ মেম্বার জানান, গত বছর পিআইও বরাদ্দে ২১০০ ফুট রাস্তায় ইট সংলিংয়ের কাজের তদারকি করেছি। আজই সরেজমিনে নির্মিত ভবনের অতিরিক্ত সানশেটটি দেখে কয়েকজনের কাছে মন্তব্য করেছি। কাজটি ঠিক হয়নি। দেলোয়ার বেপারী আমার আত্মীয় হলেও যেটা সত্য সেটাই বলব।
এ ব্যাপরে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোসাম্মৎ রহিমা আক্তারের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আমি অবগত নই। এ বিষয়ে খোঁজ খবর নিয়ে দেখা হবে।

আরো পড়ুন; ইউরোপের আইন-শৃঙ্খলা ও কিশোর অপরাধ

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here