13.7 C
New York
সোমবার, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২১

শ্রীপুরে বিধবা কুলসুম বিবিকে বসতঘর করে দিলেন সাদ্দাম হোসেন অনন্ত

রাকিবুল হাসান আহাদ, বিশেষ প্রতিনিধিঃ

বিজ্ঞাপন

গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ ইউনিয়নে মধ্য পাড়া গ্রামের বিধবা কুলসুম বিবিকে বসতঘর করে দিলেন সফল ব্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন অনন্ত।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার ৯ই জুলাই কাওরাইদ ইউনিয়নের মধ্যপাড়া গ্রামে গিয়ে বিধবা কুলসুম বলে বিবিকে এক মাসের নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্য সামগ্রী ও ঈদ সামগ্রী দিয়ে আসেন ব্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন অনন্ত।

এ সময় বসতঘর এবং খাদ্য সামগ্রী পেয়ে বিধবা কুলসুম বিবি আবেগ আপ্লুত হয়ে বলেন, আমার স্বামী মারা গেছেন গত ১১ বছর পূর্বে,একমাত্র ছেলেকে নিয়ে পলিথিন টানিয়ে বৃষ্টিতে ভিজে রোদে পুরে বসবাস করে আসতেছি। অনেকেই ঘর বানিয়ে দিবে আশা দিয়েছেন, কিন্তু কেউ ঘর বানিয়ে দেই নাই।

বিজ্ঞাপন

সাদ্দাম বাবা আরামে থাকার মতো একটি ঘর করে দিয়েছে, এখন আর কষ্ট করে থাকতে হবে না,রোদ বৃষ্টিতে ভিজতে হবে না। সাথে চাল, ডাল, তৈল, সাবান, পেয়াজ, রসুন, আদা, সেমাই, চিনি, লবণ ও বিস্কুট দিয়েছে, সন্তানকে নিয়ে অনেক দিন খাইতে পারবো। আমি অনেক খুশি ও আনন্দিত, সাদ্দাম বাবা সব দিয়েছে । তিনি আনন্দের অশ্রু ঝরা চোখে বলেন সাদ্দাম বাবাকে আল্লাহ অনেক দিন বাঁচিয়ে রাখুক।

সাদ্দাম হোসেন অনন্ত গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলার ০২নং গাজীপুর ইউনিয়নের, ধনুয়া গ্রামের কৃতি সন্তান। ইতি পূর্বে বিভিন্ন ছিন্ন মূল মানুষ কে ঘর করা সহ অনেক সামাজিক উন্নয়ন মুলক কাজে অবদান রেখেছেন সাদ্দাম।

বিজ্ঞাপন

জানা যায়, কুলসুম বিবির একমাত্র সন্তানকে নিয়ে বসবাস করতেন পলিথিন মোড়ানো ঘরে। কুলসুম বিবির বাবার বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানা দত্তের বাজার ইউনিয়ননের কন্যামন্ডল গ্রামের মৃত আব্দুল রহমান শেখের মিয়ার মেয়ে। বাবা ছিলেন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা।

কুলসুম বিবি এবং তার স্বামী একই এলাকার বাসিন্দা ছিল, কুলসুম বিবির বিবাহের পর স্বামীকে নিয়ে, কাওরাইদ মধ্যপারা সাড়ে তিন শতাংশ জমি কিনে সংসার শুরু করেন। তাদের সংসার জীবনে একটি পুত্র সন্তান জন্ম হয়। স্বামী ঠেলা গাড়ি চালিয়ে জীবিকা সহ জীবন যাপন করতেন। ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে কুলসুম বিবির স্বামী মারা যান, একমাত্র সন্তানকে নিয়ে পলিথিন মোড়ানো ঘরে দীর্ঘদিন যাবৎ বসবাস করেছেন।

স্থানীয় একটি ফেইসবুক আইডি স্টাটাস দেখে,উদীয়মান তরুণ সফল ব্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন অনন্ত,(সভাপতি এসোসিয়েশন অফ টেকনিক্যাল ট্রেনিং ইনস্টিটিউট, গাজীপুর) সরেজমিনে গিয়ে কুলসুম বিবির করুণ হৃদয়বিতারক দৃশ্য দেখে, নিজ উদ্যোগে থাকার জন্য একটি টিনসিট ঘর ও এক মাসের খাদ্য সামগ্রী প্রধান করেন।

এ ব্যাপারে সাদ্দাম হোসেন অনন্ত বলেন, আমি আমার সামর্থ্য থেকে মানবিক কারণে ব্যক্তিগত ভাবে একটি বসতঘর কুলসুম বিবিকে করে দেই।

কোন স্বার্থের জন্য নয়,আল্লহর সন্তুষ্টির জন্য। সেবাই সর্ব উত্তম ধর্ম এটাই ইসলাম এবং কুরআন বলছে। তাই আমার জায়গা থেকে আমি সর্বাত্নক চেষ্টা করে যাচ্ছি।

সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি যেনো অসহায় মানুষের কল্যাণে নিজেকে সর্বদাই নিয়োজিত রাখতে পারি।

আরও পড়ুনঃ দায়িত্ব পালনে আমি ভেটেরিনারি, ডাঃ তানজিলা ফেরদৌসী

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

সর্বশেষ সংবাদ

বিজ্ঞাপন
x