1. durjoybangla24@gmail.com : durjoy bangla : durjoy bangla
  2. afzalhossain.bokshi13@gmail.com : Afjal Sharif : Afjal Sharif
  3. aponsordar122@gmail.com : Apon Sordar : Apon Sordar
  4. awal.thakurgaon2020@gmail.com : abdul awal : abdul awal
  5. sheblikhan56@gmail.com : Shebli Shadik Khan : Shebli Shadik Khan
  6. jahangirfa@yahoo.om : Jahangir Alam : Jahangir Alam
  7. mitudailybijoy2017@gmail.com : শারমীন সুলতানা মিতু : শারমীন সুলতানা মিতু
  8. nasimsarder84@gmail.com : Nasim Ahmed Riyad : Nasim Ahmed Riyad
  9. netfa1999@gmail.com : faruk ahemed : faruk ahemed
  10. mdsayedhossain5@gmail.com : Md Sayed Hossain : Md Sayed Hossain
  11. absrone702@gmail.com : abs rone : abs rone
  12. sumonpatwary2050@gmail.com : saiful : Saiful Islan
  13. animashd20@gmail.com : Animas Das : Animas Das
  14. Shorifsalehinbd24@gmail.com : Shorif salehin : Shorif salehin
  15. sbskendua@gmail.com : Samorendra Bishow Sorma : Samorendra Bishow Sorma
  16. swapan.das656@gmail.com : Swapan Des : Swapan Des
সর্দার আলাল এখন কোটিপতি, দুই স্ত্রী রেখে ভাগিয়ে নিলেন প্রবাসীর স্ত্রী - durjoy bangla | দুর্জয় বাংলা
শনিবার, ১১ জুলাই ২০২০, ০৫:৩০ পূর্বাহ্ন




সর্দার আলাল এখন কোটিপতি, দুই স্ত্রী রেখে ভাগিয়ে নিলেন প্রবাসীর স্ত্রী

দুর্জয় বাংলা ডেস্কঃ
  • বৃহস্পতিবার, ১১ জুন ২০২০, ৭:২৬ অপরাহ্ণ
  • ৭৫৪ বার পঠিত
সর্দার আলাল এখন কোটিপতি, দুই স্ত্রী রেখে ভাগিয়ে নিলেন প্রবাসীর স্ত্রী

কলিহাসান,দুর্গাপুর (নেত্রকোনা) প্রতিনিধি:

পিতা-মাতার পছন্দের মেয়েকে বিয়ে করে স্ত্রী-সংসার নিয়ে সুখে-শান্তিতেই দিন কাটছিল সৌদি আরব প্রবাসী কাওসার মিয়ার। উপজেলার কাকৈরগড়া গ্রামের মনি আক্তার (২৫) কে বিয়ে করেন কাওসার। বিয়ের প্রায় ১বছর পর তাদের সংসারে স্বচ্ছলতা আনতে সৌদিআরব চলে যায় সে। বিদেশ যাওয়ার পরই তাদের সংসারে মহতাসিন বিল্লাহ নামের একটি ছেলে সন্তান জন্ম নেয়। স্ত্রী মনি আক্তার স্থানীয় একটি কলেজে বিএ অধ্যয়নরত হওয়ায় তার সন্তানসহ শাশুরী কে দিয়ে দুর্গাপুর পৌর শহরে বাসা ভাড়া করে থাকার সুযোগ করে দেন কাওসার। এ কাজটিই যেন তার জীবনে বড় অভিশাপ হয়ে দাঁড়ায়। গত মঙ্গলবার বিকেলে দুর্গাপুর থানায় এ বিষয়ে প্রবাসী কাওসার মিয়ার বড় ভাই লাক মিয়া বাদী হয়ে অভিযোগ দাখিল করে। অভিযোগের সতত্যা নিশ্চিত করেছেন দুর্গাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ মিজানুর রহমান।

অভিযোগ ও কাওসার মিয়ার কাছ থেকে জানা গেছে, সুখের সংসারে হঠাৎ একদিন নেমে আসে কালো আধাঁর। ভেঙে তছনছ হয়ে যায় সুখের সংসার। আর এর জন্য তার স্ত্রীর সাথে দুর্গাপুর পৌর শহরের ৩ সন্তানের জনক, পৌর শ্রমীকলীগ সভাপতি আলাল সর্দারের পরকীয়া প্রেমকেই দায়ী করছেন। ওই শ্রমীক নেতার পরকীয়া প্রেম, বিদেশ থেকে পাঠানো টাকা-স্বর্ণালঙ্কার এবং নারী লোভি লালসা চরিতার্থের কারনেই এমনটা ঘটেছে। আলাল সর্দার এর পুর্বে ৩টি বিয়ে করেছে। বৈধ ও অবৈধ উপায়ে নানা ভাবে বিত্তশালী হওয়ায়, সহজ-সরল সুন্দরী মেয়েদের নানা লোভে ফেলে চরিতার্থ করে লালসা। বালু ঘাটের কুলির সর্দার থেকে রাতের আঁধারেই কোটি কোটি টাকার মালিক বনে যাওয়ায় শ্রমীকলীগ‘র সাধারণ সম্পাদক পদটি পেয়ে যায় সহজেই। ওই পদের নাম ভাঙ্গিয়ে নানা অপকর্মে লিপ্ত হয়ে পিছন ফিরে থাকাতে হয় না আলাল সর্দার কে।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, পৌর এলাকায় আলাল সর্দার এর বিরুদ্ধে সরকারী জমি দখল, নামে-বেনামে ৫টি বাড়ি নির্মাণ, বেশকটি ট্রাকের মালিক, জমি দখলকে কেন্দ্র করে অসহায় কামালকে মারধর,শুটকী ব্যবসায়ীকে প্রকাশ্যে মারধর, পৌরসদরের বালু মহালে শ্রমিক মারধর, গুটিকয়েক রাজনৈতিক নেতার প্রশ্রয়ে নানা ধরণের অনিয়ম বানিজ্য চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি। পৌর শহরের শহর রক্ষা বাঁধ এর বøক তুলে স্থাপনা নির্মাণ সহ নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের পেটানোর অভিযোগ রয়েছে। তার নামে মার্ডার মামলা রয়েছে। হঠাৎ বড়লোকের ঘ্রাণে মানুষকে মানুষ মনে করছেন না তিনি। টু থেকে টা কষলেই হুকমী দিয়ে বেড়ান যে কাউকেই। তার এ অনিয়মের খুঁটির জোড় কোথায় জানতে চায় অসংখ্য ভুক্তভোগী। স্থানীয় প্রশাসন সহ সরকার সংশ্লিষ্টদের নজরদারী কামনা করছেন সচেতনমহল।

অভিযোগকারী লাক মিয়া বলেন, ২বছর আগে আমার বাবা দুর্গাপুর কাওসার এর বৌ মনিকে দেখতে আসলে শ্বশুর এর সাথে খারাপ ব্যবহার করলে ২দিন পর বাড়ী গিয়ে হৃদযন্ত্র ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুবরণ করেন। আমার ছোট বোন ও তার আত্মীয়রা কাওসারের ছেলেকে দেখতে গেলে তাদের জীবন নাশের হুমকি দেয়া সহ বিদেশে চাকুরিত আমার ভাইকে মেরে ফেলার হুমকি দিচ্ছে আলাল সর্দার। আমরা এখন ওই কলঙ্কিত বৌ ফেরত নিতে চাইনা। আমার ভাইয়ের টাকা পয়সা, সম্পদ ও স্বর্নালঙ্কার সহ ভাইয়ের সন্তান কে ফেরত দেয়ার জন্য থানায় অভিযোগ করেছি।

অভিযোগ নিয়ে আলাল সর্দার মুঠোফোনে বলেন, আমাকে জড়িয়ে যে অভিযোগ করা হয়েছে তা সত্যি নয়। আমি মনি আক্তার কে নিয়ম মেনেই বিয়ে করেছি। বিয়ের পুর্বে কাওসার কে ডিভোর্সও দেয়া হয়েছে। আপনার বয়স ৫৩ আর মেয়ের বয়স ২৫ এ বিষয়ে জানতে চাইলে আর কিছু বলতে চান না বলে ফোন কেটে দেন।

নানা অনিয়মের সাথে জড়িত থাকা ওপর প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমি কোন অনিয়মের সাথে জড়িত নই। যার টাকা আছে,তার বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ উঠতেই পারে।

এ বিষয়ে দুর্গাপুর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মিজানুর রহমান প্রতিদেককে জানান, এ বিষয়ে একটি অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি সত্যিই দু:খজনক। এ ব্যপারে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।

আপনার মতামত লিখুনঃ
নিউজটি সেয়ার করার জন্য অনুরোধ রইল!
এই জাতীয় আরো সংবাদ







©২০১৩-২০২০ সর্বস্তত্ব সংরক্ষিত | দুর্জয় বাংলা

কারিগরি সহযোগিতায় দুর্জয় বাংলা