সিগারেটে সুখটান দিয়ে বেকায়দায় ওসি নাজমুল

টেবিলে রাখা চায়ের কাপ, হাতে সিগারেট। সেই সিগারেটে সুখটান দিচ্ছেন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি)। সুখটান দেয়ার পর কপালে হাত দিয়ে কিছু একটা ভাবছেন! ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল থানার ওসি নাজমুল আহমেদের এমনই দুটি ছবি ভাইরাল হয়েছে ফেসবুকে। ধূমপানের বিষয়টি নিয়ে ওসি যেমন বেকায়দায় পড়েছেন, তেমনি বিব্রত হয়েছেন জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতনরাও।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, গত ১৯ এপ্রিল সরাইল থানার ওসি হিসেবে যোগদান করেন পুলিশ পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) নাজমুল আহমেদ। থানায় যোগাদানের পরই মাদকের বিরুদ্ধে ‘জিরো টলারেন্স’ ঘোষণা করেন তিনি। কিন্তু বুধবার (২৯ জুলাই) ফেসবুকে ওসি নাজমুলের ধূমপানের দুইটি ছবি ছড়িয়ে পড়ে। নিজ কক্ষে বসে ধূমপান করার এই ছবি নিয়ে সমালোচনার ঝড় বইছে। দায়িত্বরত অবস্থায় ইউনির্ফম পরা একজন পুলিশ সদস্য ধূমপান করতে পারেন কি-না সেটি নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ। ওসির এই ধূমপান কান্ড নিয়ে বিব্রত জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও।
জেলা নাগরিক ফোরামের সহসভাপতি আতাউর রহমান শাহীন বলেন, ‘ধূমপান সরকারিভাবে নিষিদ্ধ না হলেও সরকারি কোনো কর্মকর্তা দায়িত্বরত অবস্থয় ধূমপান করতে পারেন না। যদি কেউ এমনটি করেন, তাহলে সমাজে বিরূপ প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়। এতে করে ধূমপায়ীরা উৎসাহিত হন’।

ধূমপানের বিষয়ে জানতে চাইলে সরাইল থানার ওসি নাজমুল আহমেদ বলেন, ‘এটি (ধূমপান) আমিই নতুন করলাম কি-না বুঝতেছি না। আমি আমার অফিস কাজ করতেছিলাম, টেনশনে ছিলাম’।
এ ব্যাপারে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরধ) রইছ উদ্দিন বলেন, ‘বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে। আমাদের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ এটি কীভাবে কী করা যায় দেখছেন’।

আপনার মতামত লিখুন

Please enter your comment!
Please enter your name here