13.7 C
New York
বৃহস্পতিবার, ফেব্রুয়ারি ২৫, ২০২১
বিজ্ঞাপন

নিজস্ব প্রতিবেদক::০সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় অবস্থিত লক্ষিপাশা কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি দেলোয়ার হোসেন ক্লিনিকে অনিয়মিত রয়েছেন। দীর্ঘদিন থেকে তিনি ক্লিনিকে অনুপস্থিত থেকেও নিয়মিত বেতন ভাতা গ্রহণ করছেন। এমন অভিযোগ করেছেন ভুক্তভোগী শতাধিক রোগী। যদি উপর মহল থেকে কোন তদন্ত আসে তাহলে কৌশলে ওই নিয়মিত অফিস করে।

বিজ্ঞাপন

গত (১৮ সেপ্টেম্বর) বুধবার লক্ষিপাশা কমিউনিটি ক্লিনিক পরিধর্শন করেন উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ছাইদ এনাম ওই সময় দেলোয়ার নিজে উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে- সি.এইচ.সি.পি দেলোয়ার হুসাইন শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার অফিসে ডিউটি করার কথা থাকলেও তিনি বেশির ভাগ সময় উনার নিজের কাজে ব্যয় করেন। বৃহস্পতিবার ১৯ সেপ্টেম্বর সরেজমিনে লক্ষিপাশা কমিউনিটি ক্লিনিকে গিয়ে দেখা যায়, স্বাস্থ্য সহকারী মোঃ আব্দুস ছবুর তিনি একাই ক্লিনিকে রোগীদের সেবা প্রদান করছেন। প্রশ্ন করলে আব্দুস ছবুর বলেন, সি.এইচ.সি.পি দেলোয়ার হুসাইন অফিসে আসেন নাই।

বিজ্ঞাপন

সিলেট সদর উপজেলা সাহেবের বাজার এলাকার মৃত ছয়দুল হকের ছেলে দেলোয়ার হুসাইন তিনি ক্লিনিকে চাকুরির পাশাপাশি তার এলাকায় বেশির কাটান। বৃহস্পতিবার অফিস না করে তার এলাকায় বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্টানে সময় দিচ্ছেন।

সি.এইচ.সি.পি দেলোয়ার হুসাইনের কাছে উক্ত অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি প্রতিবেদককে কোন সদউত্তর না দিয়ে প্রতিবেদকের বাড়ির ঠিকানা জানতে চান। এমনি তিনি বলেন- বর্তমানে সিলেট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আশফাক আহমদের সাথে আছেন কিন্তু উনার কর্মস্থলে তিনি উপস্থিত নেই।

বিজ্ঞাপন

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দক্ষিণ সুরমা উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. ছাইদ এনাম বলেন- দেলোয়ার হুসাইনের বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ আছে। আমি তদন্ত করে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিবো। এবং বিষয়টি উর্ধতন কতৃপক্ষকে জানানো হবে।

সিলেট সিভিল সার্জন ডা: হিমাংশু লাল রায়ের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন- এ বিষয়ে আমার জানা নেই তবে খোজ নিয়ে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো এবং রোববার ক্লিনিক পরিদর্শন করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

বিজ্ঞাপন

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ সংবাদ

x