সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

দুর্জয় বাংলা || Durjoy Bangla

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের

রামগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত-২

প্রকাশিত: ১৮:৫৭, ২৪ নভেম্বর ২০২৩

রামগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত-২

রামগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত-২

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে নূরুল আমিন ও নাজমা বেগম নামের দুইজনকে পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা করার অভিযোগ উঠেছে প্রতিপক্ষের লোকজনের বিরুদ্ধে।

২৩ নভেম্বর বৃহস্প্রতিবার সাড়ে ১১ টায় উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের খোদ্দরনগর বকশদ পাটওয়ারী বাড়ীর শামছুল হকের ছেলে আবদুর রহিম তাদের উপর এ হামলা চালায়। আহত নূরুল আমিন একই বাড়ীর আবদুল গফুরের ছেলে আর নাজমা নূরুল আমিনের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভাটরা ইউনিয়নের খোদ্দরনগর বকশদ পাটওয়ারী বাড়ীর শামছুল হকের ছেলে আবদুর রহিমের সাথে একই বাড়ীর আবদুল গফুরের ছেলে নূরুল আমিনের দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে। ঘটনার দিন সকালে রহিম জমি দাবী করে নূরুল আমিনের গোয়াল ঘরের চার পাশে বেড়া দিতে গেলে নূরুল আমিন বাধা দেয় । 

এতে দুজনের মাঝে বাগবিতন্ডতার সৃষ্টি হয় । একপর্যায়ে রহিম হাতে থাকা দিয়ে নূরুল আমিনকে মারধর শুরু করে চিৎকার শুনে তার স্ত্রী নাজমা বেগম ছুটে আসলে তাকেও বেদড়ক পেটাতে শুরু করে রহিম। এতে নাজমা বেগমের হাত ভেঙ্গে যায়। পরে আহতদের উদ্ধার করে রামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন স্বজনরা।

ভক্তভোগী নূরুল আমিন বলেন, আমার জমিতে জোরপূর্বক বেড়া দিচ্ছে রহিম। এসময় বাধা দিলে রহিম ও তার স্ত্রী কামরুন নাহার আমার উপর হামলা করে । এসময় আমার স্ত্রী নাজমা বেগম এগিয়ে আসলে তাকে পিটিয়ে হাত ভেঙ্গে দিয়েছে। আমরা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছি।

অভিযুক্ত আবদুর রহিম বলেন, আমার জমিতে আমি বেড়া দিয়েছি। তারা বাধা দিতে এলে তাদের সাথে হাতাহাতি হয়েছে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখ শামছুল ইসলাম বুলবুল বলেন, আমরা গ্রাম আদালতের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের জন্য বারবার চেষ্টা করেছি। কিন্তু রহিম কোন ভাবেই মানছে না।

রামগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মোহাম্মদ সোলাইমান বলেন, অভিযোগ পাইনি পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

আরও পড়ুন: জয়পুরহাটে আগাম আলু চাষে ব্যস্ত কৃষক


Notice: Undefined variable: sAddThis in /home/durjoyba/public_html/details.php on line 808