সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

দুর্জয় বাংলা || Durjoy Bangla

বিয়ের পিঁড়িতে চিত্রনায়িকা মৌসুমী হামিদ

প্রকাশিত: ১০:৫৯, ১৩ জানুয়ারি ২০২৪

বিয়ের পিঁড়িতে চিত্রনায়িকা মৌসুমী হামিদ

চিত্রনায়িকা মৌসুমী হামিদ। ছবি: সংগৃহীত

আজ শুক্রবার চিত্রনায়িকা মৌসুমী হামিদের বিয়ের আনুষ্ঠানিকতা হচ্ছে। আর এরই মধ্যে ১০ জানুয়ারি বুধবার সন্ধ্যায় হয়ে গেল তার গায়ে হলুদ। মৌসুমী যাকে বিয়ে করতে যাচ্ছেন তার নাম আবু সাইয়িদ। তিনি ঢাকার স্থায়ী বাসিন্দা। তারা দু’জনেই শোবিজ অঙ্গনের সঙ্গে জড়িত। তবে সাইয়িদ কাজ করেন ক্যামেরার পেছনে।

জানা গেছে, বেশ কিছু দিন ধরে প্রেম করছিলেন আবু সাইয়িদ ও মৌসুমী হামিদ। এর পর পারিবারিক সিদ্ধান্তেই বিয়ের পিঁড়িতে বসতে চলেছেন তারা। যদিও বিয়ে প্রসঙ্গে দু’জনের কেউ-ই এখনো মুখ খোলেননি। তবে বুধবার রাতেই তাদের গায়ে হলুদের একাধিক ছবি প্রকাশ পেয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। যেখানে নবদম্পতিকে শুভকামনা জানাতে দেখা গেছে সহকর্মীদের।

জানা যায়, অভিনেত্রীর পরিবার ও ঘনিষ্ঠ কিছু বন্ধুকে নিয়ে বিয়ের আয়োজন সেরে নিচ্ছেন মৌসুমী হামিদ। বিয়ের পরে তাদের দেশের বাইরে হানিমুনে যাওয়ার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, দীর্ঘদিন ধরেই মিডিয়ার সব সাংবাদিকের মুখে প্রায়ই তাকে একটি প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হয়েছে। সেটা মোবাইলেই হোক আর সামনা-সামনিই হোক। তখন তিনি প্রতিটি উত্তরেই বলতেন তার চেয়ে দীর্ঘদেহী না হলে বিয়ে করবেন না। মৌসুমীর উচ্চতা পাঁচ ফুট সাড়ে নয় ইঞ্চি। সে ক্ষেত্রে তার পাত্রকে কমপক্ষে পাঁচ ফুট দশ ইঞ্চি হতে হবে। দীর্ঘদেহী পাত্র পাচ্ছিলেন না বলেই এই বিয়ের জন্য অনেক লম্বা সময় পার করে দিতে হয়েছে মৌসুমী হামিদকে। তার এই উচ্চতাই বিয়ের জন্য বড় অন্তরায় হয়ে গিয়েছিল। অন্যদিকে বিয়ে দেরি হয়ে যাচ্ছিল বলেই হয়তো মাঝে একবার মুখ ফসকে বলে ফেলেছিলেন, ‘আমি খাটো ছেলেদের পছন্দ করি না। খাটো ছেলেরা শয়তান হয়।’ এটা কম দুঃখে বলেননি তিনি। বিয়ের বয়স পার হয়ে যাচ্ছিল বলেই মুখ ফসকে এমন কথা বলে ফেলেছিলেন। এখন প্রায় চল্লিশে পড়েছেন মৌসুমী হামিদ। অবশেষে চল্লিশেই পাশে পেলেন তারই পেশাগত অঙ্গনের একজন ক্যামেরাম্যান আবু সায়িদকে।

লাক্স সুপারস্টার প্রতিযোগিতার মাধ্যমে বিনোদন অঙ্গনে পা রাখেন মৌসুমী হামিদ। এরপর কাজ করেছেন নাটক, চলচ্চিত্র, ওটিটি সব মাধ্যমেই। সর্বশেষ গত বছরের ১৮ আগস্ট মুক্তি পেয়েছে মৌসুমী অভিনীত সিনেমা ‘১৯৭১ সেই সব দিন’। প্রয়াত ড. ইনামুল হকের গল্পে এটি নির্মাণ করেছেন তার কন্যা অভিনেত্রী ও নির্মাতা হৃদি হক।

এছাড়া এই অভিনেত্রীর আরও দুটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। সিনেমা দুটি হচ্ছেÑ সোহেল রানা বয়াতি পরিচালিত ‘নয়া মানুষ’ ও হাবিবুল ইসলাম হাবিব পরিচালিত ‘যাপিত জীবন’।

আরও পড়ুন: আটপাড়ায় আ.লীগের নির্বাচন পরবর্তী মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত


Notice: Undefined variable: sAddThis in /home/durjoyba/public_html/details.php on line 808