সোমবার ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ২ বৈশাখ ১৪৩১

দুর্জয় বাংলা || Durjoy Bangla

পাটের ফলন বাম্পার, ন্যায্য দাম না পাওয়ায় হতাশ কৃষক

প্রকাশিত: ২০:৪৯, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩

পাটের ফলন বাম্পার, ন্যায্য দাম না পাওয়ায় হতাশ কৃষক

পাটের ফলন বাম্পার, ন্যায্য দাম না পাওয়ায় হতাশ কৃষক

নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় এবার আগাম বৃষ্টি না হওয়ায় আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় সোনালি আঁশ পাটের বাম্পার ফলন হয়েছে। যার ফলে ক্রমেই পাট চাষে আগ্রহ বাড়ছে কৃষকদের মাঝে। ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকরা আপাতত খুশি। তবে ভাল ফলনে দাম নিয়ে হতাশায় ভুগছেন স্থানীয় কৃষকরা। 

উপজেলায় ইতোমধ্যে ক্ষেত থেকে পাট কাটার কাজ শেষ করেছে। এরই মধ্যে মুক্ত জলাশয়ে জাঁক দেয়া পাট থেকে আঁশ ছাড়ানোর ও শুকানো কাজ শেষ করে বিক্রির চিন্তা করছেন। কিন্তু দাম নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেছেন কৃষকেরা। সরকারি ও বেসরকারি পাটকল গুলো বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সঠিক দাম পাওয়া নিয়ে দুশ্চিন্তায় ও হতাশায় পড়েছেন সাধারণ কৃষকেরা।

কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, কয়েক বছর আগেও চাষিরা পাট চাষ করে লোকসানে পড়েছিলেন। তাই অনেকে বাধ্য হয়ে অন্য ফসলের দিকে ঝুঁকে পড়েন। মাঝে স্বল্প পরিসরে যারা আবাদ ধরে রেখেছিলেন, তারাই লাভবান হয়েছেন। তাদের দেখেই অন্যরা আবারো পাট চাষে ফিরেছেন। গত বছর পাটের দাম ভালো পাওয়ায় চলতি মৌসুমের শুরুতেই চাষিরা পাট চাষের দিকে ঝুঁকে পড়েছিলেন। এতে পাটের আবাদ বেড়েছে অনুকূল আবহাওয়ায় ফলনও ভালো হয়েছে। কিন্তু এ বছর দাম কমে যাওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকালে সরেজমিনে উপজেলার পূর্বরায় গ্রামের পাট চাষি মোঃ ওয়াসকরুনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি  বলেন, এবার আমার জমির ৫০শতাংশ জমিতে পাট চাষ করেছি । তিনি আরো বলেন, আমি প্রতি বছরই পাট চাষ করে থাকি। ফলন এবার ভাল হয়েছে। কঠিন পরিশ্রম করে পাট আবাদ করি। কিন্তু বর্তমান বাজারে পাটের দাম অনেক কম। এতে লোকসানে পড়তে হচ্ছে।

ইসলাম উদ্দিন নামে আরেক পাটচাষি বলেন, গত বছর দুই বিঘা জমিতে পাট আবাদ করে কিছুটা লাভ করতে পেরে এবার আবাদ বাড়িয়েছি। কিন্তু এখন দেখছি আগের থেকে ১ হাজার টাকা কমে গেছে পাটের দাম। পাটের উৎপদন খরচ আর বদলি খরচ বাবদ ৫০০ টাকা খরচসহ বর্তমানে যে পাটের বাজার মূল্য তাতে লোকশানের মুখে পড়তে হবে। সরকার যদি পাটের দাম না বাড়ায় তাহলে আমাদের পাটের আবাদ থেকে সরে আসতে হবে। সরকারের উচিত পাটের মূল্যা বাড়ানো।

পাটের ফলন ভাল হওয়ায় এলাকার মৌসুমি শ্রমিকদের ব্যস্ততা ও বেড়েছে। এক আঁটি জাঁক দেওয়া পাট থেকে আঁশ ছাড়িয়ে ২০টাকা পাওয়া যায়। সব মিলিয়ে দিনে ১০০ থেকে ১২০ টাকা টাকার মতো আয় হয় তাদের। এদিকে পাইকাররা বলছেন, মিল মালিকেরা পাটের সঠিক দাম না দেয়ার পাশাপাশি গত বছরের বকেয়া বিল থাকায় কৃষকদের কাছ থেকে কম মূল্যে পাট ক্রয় করতে হচ্ছে।

কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, উপজেলায় গত বছর প্রতি মণ পাট ২হাজার ৫০০ থেকে ৩ হাজার টাকায়  বিক্রি করলেও বর্তমানে তা ১হাজার টাকা কমে ২হাজারের নিচে নেমে এসেছে। এদিকে চলতি মৌসুমে উপজেলায় পাট আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ৫৮০হেক্টর জমিতে ধরা হয়েছে। আবাদ ও হয়েছে ৫৮০হেক্টর জমিতে। 

কেন্দুয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শারমিন সুলতানা বলেন, আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফলন এবার  আশানুরূপ হয়েছে। তিনি আরো বলেন, প্রথম দিকে পাটের দাম কিছুটা কম থাকে। কৃষকরা এখন যে পাটের দামটা কিছুটা কম পাচ্ছে কৃষকরা যদি তাদের উৎপাদিত পাট কিছুদিন মজুদ রাখতে পারে, তাহলে আশা করি দেড় মাস কিংবা দু’মাসের মধ্যে দামটা আরো বাড়বে। তখন কৃষকরা ভালো দাম পাবেন। 

কৃষি কর্মকর্তা আরো বলেন, চলতি বছরে উপজেলায় ৫৮০ হেক্টর জমিতে পাটের চাষাবাদ হয়েছে। এবার প্রতি হেক্টর জমিতে ১.৬ মেট্রিকটন ফলন হয়েছে। এ ধারাবাহিকতা বজায় রাখলে আশাকরি পাটের যে সোনালী দিন ছিলো সেটা আমরা খুব কম সময়ের মধ্যেই ফিরে যেতে পারবো। এ উপজেলায় পাট উৎপাদন ভালো হওয়ায় চাষিদের নিয়মিত বিভিন্ন পরামর্শ ও সহায়তা দেয়া হচ্ছে। এবার আশা করছি ন্যায্য দাম পেলে কৃষক লাভবান হবেন। সে ক্ষেত্রে সামনের বছরে আরো দ্বিগুণ জমিতে পাট উৎপাদনে ঝুঁকবে কৃষকরা। পাটের লক্ষ্যমাত্রাও দ্বিগুন অর্জন হবে পাশাপাশি পাটের উৎপাদনও বাড়বে।

আরও পড়ুন: স্কুল মিল্ক কার্যক্রম চালু হওয়ায়,ক্লাসে শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি বাড়ছে 

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন

শীর্ষ সংবাদ:

ঈদ ও নববর্ষে পদ্মা সেতুতে ২১ কোটি ৪৭ লাখ টাকা টোল আদায়
নতুন বছর অপশক্তির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে প্রেরণা জোগাবে: প্রধানমন্ত্রী
কলমাকান্দায় মোটরসাইকেলের চাকা ফেটে তিনজনের মৃত্যু
র‌্যাব-১৪’র অভিযানে ১৪৫ পিস ইয়াবাসহ এক মাদক ব্যবসায়ী আটক
সবার সাথে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করুন: প্রধানমন্ত্রী
ঈদের ছুটিতে পর্যটক বরণে প্রস্তুত প্রকৃতি কন্যা জাফলং ও নীল নদ লালাখাল
কেন্দুয়ায় তিন দিনব্যাপী ‘জালাল মেলা’ উদযাপনে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত
ফুলবাড়ীতে ঐতিহ্যবাহী চড়কসহ গ্রামীণ মেলা অনুষ্ঠিত
কেন্দুয়ায় আউশ ধানের বীজ বিতরণ ও মতবিনিময় অনুষ্ঠিত
কলমাকান্দায় দেশীয় অস্ত্রসহ পিতাপুত্র আটক
ঠাকুরগাঁওয়ে গ্রামগঞ্জে জ্বালানি চাহিদা পূরণ করছে গোবরের তৈরি করা লাকড়ি গৃহবধূরা
ফুলবাড়ীতে এসিল্যান্ডের সরকারি মোবাইল ফোন নম্বর ক্লোন চাঁদা দাবি: থানায় জিডি দায়ের
ফুলবাড়ীতে সবজির দাম উর্ধ্বমূখী রাতারাতি দাম বাড়ায় ক্ষুব্ধ ভোক্তা
ধর্মপাশায় সরকারি রাস্তার গাছ কেটে নিলো এক শিক্ষক
সাঈদীর মৃত্যু নিয়ে ফেসবুকে ষ্ট্যাটাস দেয়ায় রামগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতা বহিস্কার
বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের বাড়ীতে অনশন
মসিকে ১০ কোটি টাকার সড়ক ও ড্রেনের কাজ উদ্বোধন করলেন মেয়র
কলমাকান্দায় নদীর পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু
বিলুপ্তির পথে ঐতিহ্যবাহী বাঁশ-বেত শিল্প
বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও প্রাবন্ধিক যতীন সরকারের জন্মদিন উদযাপন
বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ যতীন সরকারের ৮৮তম জন্মদিন আজ
১ বিলিয়ন ডলার নিয়ে এমএলএম mtfe বন্ধ
কলমাকান্দায় পুলিশের কাছে ধরা পড়লো তিন মাদক কারবারি
আটপাড়ায় জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ১০৩ জন কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা
নকলায় ফাঁসিতে ঝুলে নেশাগ্রস্থ কিশোরের আত্মহত্যা
বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নুরুল ইসলামের রাজনৈতিক জীবনের ইতিহাস
কলমাকান্দায় আগুনে পুড়ে ২১ দোকানঘর ছাই

Notice: Undefined variable: sAddThis in /home/durjoyba/public_html/details.php on line 809