মঙ্গলবার ০৫ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০

দুর্জয় বাংলা || Durjoy Bangla

চুরি’র মামলায় চার কিশোর আটক

প্রকাশিত: ২৩:০০, ১১ জুন ২০২৩

চুরি’র মামলায় চার কিশোর আটক

চুরি’র মামলায় চার কিশোর আটক

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে চুরির অভিযোগে চোর চক্রের সদস্য চার কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। এ সময় তাদের কাছ থেকে চোরাই মালামাল উদ্ধার করা হয়।

রোববার দুপুরে তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এরআগে শনিবার রাতে পৌরশহরের টেংগাপাড়া এলাকা থেকে তাদের চোরাই মালামালসহ আটক করে স্থানীয়রা।

পরে মালামালগুলো চিনতে পেরে উপজেলার শেওড়াতলী গ্রামের মো. গাজী রহমান বাদী হয়ে থানায় মামলা করেন।

আটকরা হলো- উপজেলার  বড় বেথাম গ্রামের মো. মোহন খানের ছেলে মো. অনিক মিয়া (১৫), একই গ্রামের মো. মুক্তার হোসেনের ছেলে মো. শুভ মিয়া (১৫),  মো. জমির উদ্দিনের ছেলে মো. রহিম মিয়া (১৪) ও  পৌরশহরের টেংগাপাড়া এলাকার কাজী অফিস মোড়ের মো. উজ্জ্বল মিয়ার ছেলে  মো. সুজন মিয়া (১৫)।

মামলার অভিযোগ, পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শেওড়াতলী গ্রামের সমাজ কল্যাণ সমবায় সমিতির পরিত্যক্ত ভবনে গাজী রহমান হ্যান্ড ট্রলির চাকা, সেলু মেশিনের পাম্প, জানালার পুরাতন গ্রিলসহ নানান জিনিসপত্র রাখেন। 

শনিবার সন্ধ্যার পর সেগুলো চুরি করে ওই চোর চক্রের সদস্যরা। রাত ১১টার দিকে মোহগঞ্জ বাজারের একটি ভাঙারি দোকানে এসব মালমাল বিক্রি করতে গেলে দোকানির সন্দেহ হলে তাদের আটক করেন।  পরে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করলে এগুলো শেওড়াতলীর গাজী রহমানের মালামাল বলে জানায় তারা। 

পরে গাজী রহমানকে খবর দিলে তিনি দিয়ে মালামালগুলো নিজের বলে চিহ্নিত করেন।  এদিকে বিক্রির সময় পাঁচ কিশোরকে আটক করলেও বড় বেথাম গ্রামের আলী আকবরের ছেলে মো. রাজু মিয়া (১৪) কৌশলে পালিয়ে যায়। আর বাকি চারজনকে আটক করে পুলিশে দেওয়া হয়। এ ঘটনায় রাতেই গাজী রহমান পাঁচ কিশোরসহ আরও অজ্ঞাত ২/৩ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন।

মোহনগঞ্জ থানার ওসি মো. রফিকুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় করা মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে রোববার দুপুরে তাদের আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: কেন্দুয়ায় আড়াই কোটিরও বেশি টাকার উন্নয়ন কাজ উদ্বোধন


Notice: Undefined variable: sAddThis in /home/durjoyba/public_html/details.php on line 809