সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৩ ফাল্গুন ১৪৩০

দুর্জয় বাংলা || Durjoy Bangla

মদনে প্রবাস ফেরত স্বামীকে পুড়িয়ে হত্যা, স্ত্রী ও শাশুড়ি গ্রেপ্তার

প্রকাশিত: ০৯:৫৬, ২৪ নভেম্বর ২০২৩

মদনে প্রবাস ফেরত স্বামীকে পুড়িয়ে হত্যা, স্ত্রী ও শাশুড়ি গ্রেপ্তার

মদনে প্রবাস ফেরত স্বামীকে পুড়িয়ে হত্যা, স্ত্রী ও শাশুড়ি গ্রেপ্তার

নেত্রকোণার মদনে প্রবাস ফেরত স্বামীকে পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় মূলহোতা স্ত্রী মোছা. মুক্তা আক্তার এবং শাশুড়ি মোছা. লুৎফুন নেছাকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-১৪ ময়মনসিংহ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব-১৪ ময়মনসিংহের উপপরিচালক অপারেশনস অফিসার মো. আনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

মামলার এজহার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, প্রায় ৬ বছর আগে কেন্দুয়া থানার পাছর (মাইজপাড়া) গ্রামের মৃত আলী আমজাদের পুত্র এখলাছ মিয়ার সঙ্গে একই জেলার মদন থানাধীন বাড়রী (সুতিয়ারপাড়) গ্রামের মো. খাইরুল ইসলামের কন্যা মোছা. মুক্তা আক্তারের পারিবারিকভাবে বিয়ে হয়। বিয়ের এক বছর পর এখলাছ মিয়া বিদেশে চলে গেলে তার স্ত্রী পিতার বাড়িতে বসবাস করতেন।

এখলাছ মিয়া বিদেশ থেকে উপার্জিত অর্থ তার স্ত্রীর কাছে পাঠাতেন। ৫ বছর বিদেশে থাকার পর এখলাছ মিয়া বাড়িতে এসে তার উপার্জিত পাঠানো অর্থসহ স্ত্রীকে আনতে গেলে তার স্ত্রী টাকা-পয়সা দেবে না এবং তার বাড়িতে আসবে না বলে জানালে উভয়ের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়। একপর্যায়ে স্ত্রী-শাশুড়িসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জন এখলাছ মিয়ার হাত-পা বেঁধে পেট্রোল ঢেলে দিয়ে গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরবর্তীতে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে এসে এখলাছ মিয়াকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য মদন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসেন।

এখলাছ মিয়ার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন। সেখানে তার শারীরিক অবস্থার উন্নতি না হলে চিকিৎসকরা তাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে প্রেরণ করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত শনিবার তার মৃত্যু হয়।

এ ঘটনায় নিহতের চাচাতো ভাই মো. জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে নিহতের স্ত্রী-শ্বশুর-শাশুড়িসহ অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জনকে আসামি করে নেত্রকোণার মদন থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এদিকে ঘটনার পর থেকে আসামিরা পলাতক ছিলেন। এরই প্রেক্ষিতে, বিভিন্ন তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ ও বিশ্লেষণের মাধ্যমে র‌্যাব-১৪ সদর ব্যাটালিয়নের উপ-পরিচালক অপারেশনস অফিসার মো. আনোয়ার হোসেনের নেতৃত্বে একটি আভিযানিক দল বৃহস্পতিবার রাতে ময়মনসিংহ মহানগরীর সানকিপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে হত্যা মামলার মূলহোতা নিহতের স্ত্রী মোছা. মুক্তা আক্তার (২৮), শাশুড়ি মোছা. লুৎফুন নেছাকে (৫০) আটক করে। আসামিদের নেত্রকোণা জেলার মদন থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: মৈমনসিংহ গীতিকার সংগ্রাহক চন্দ্র কুমার দে’র স্মৃতি-নিদর্শন


Notice: Undefined variable: sAddThis in /home/durjoyba/public_html/details.php on line 808